Saturday, May 25, 2024

Digha: বর্ষবরণে পর্যটকের থিকথিকে ভীড় দিঘায়! কোভিড বিধি বজায় রাখতে মরিয়া পুলিশের কড়া নজরদারি

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: ২৫শে ডিসেম্বরের পর ১লা জানুয়ারি, ৬দিনের ব্যবধানে ফের পর্যটকদের উন্মাদনায় মেতে উঠতে চলেছে দিঘা। আর তারই আভাস মিলল ২০২১ এর শেষের দিনটি। শুক্রবার, ২০২১ বর্ষ বিদায়ের দিনটিতে সারা বাংলা যেন হামলে পড়েছে দিঘায়। ওল্ড দিঘা থেকে নিউ দিঘা, দেড় কিলোমিটারের জাতীয় সড়কে আজ গাড়ি ছোটানোই দায় হয়ে পড়েছে পর্যটকের চাপে। সকাল থেকেই বাংলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ওড়িশাগামী বাস কিংবা পণ্যবাহী লরি ক্রমাগত আটকে পড়েছে ভীড় সরিয়ে পথ করে নিতে। চালকদের বারংবার হর্ন আর মানুষের কোলাহলে সরগরম সৈকত শহর।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

ওদিকে নিউ দিঘা হয়ে দিঘা মোহনা ছাড়িয়ে সমুদ্র বরাবর সৈকত সরনীতেও হামলে পড়েছে ভীড়। আকাশ কিছুটা পরিস্কার থাকায় সাত সকালেই হোটেল ফেলে দলে দলে পর্যটকরা ভোর থেকেই ছুটছেন সূর্যোদয় দেখার আশায়। কচিকাঁচারা যেমন বাবা-মায়ের হাত ধরে চলেছে তেমনই গায়ে গা লাগিয়ে প্রিয়তম শরীর থেকে উষ্ণতা ভাগ করে নিতে জোড়ায় জোড়ায় হাঁটছেন নবদম্পতি কিংবা প্রেমিক প্রেমিকার দল। সামান্য শীত বাড়ায় জমজমাট মধুচন্দ্রিমা। ঘোড়ার পিঠে চড়ে মেঘচেরা সূর্যকে পাকড়াতে সুন্দরীদের মরিয়া সেলফি প্রেম। কাঁধে ক্যামেরা ঝুলিয়ে তারই মধ্যে ২মিনিটে হাতে হাতে প্রিন্ট দিতে ফটোগ্রাফার ছুটছেন যুবক যুবতীর পিছু পিছু। সব মিলিয়ে ২০২২ শুরুর মুখেই জমজমাট দিঘা।

ওপাশে প্রাণ ওষ্ঠাগত পুলিশকর্মীদের। নতুন বছরের মুখে মারাত্মক আতঙ্কের কারন হিসাবে হাজির হয়েছে করোনার তৃতীয় ঢেউ। সমুদ্রের ঢেউকেও ছাপিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা যেন সত্যি করেই বাংলায় ১দিনে করোনা সংক্রমন দ্বিগুন হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী থেকে স্বাস্থ্যদপ্তরের কড়া হুঁশিয়ারি কোভিড বিধি মেনে চলার। দিঘার দুটি থানার আধিকারিক আর পুলিশ কর্মীদের রাতের ঘুম ছুটেছে। জেলা সদর থেকে এসে পৌঁছেছে অতিরিক্ত পুলিশ বাহিনী। ভীড়ের রাশ টানতে আর কোভিড বিধি মানাতে ছুটে বেড়াচ্ছেন এপ্রান্ত থেকে ও প্রান্ত। জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে চলছে অবিরাম সতর্কীকরণ, মাইকিং। মাস্ক না পরে দিঘায় ঘোরাফেরা করলেই ব্যবস্থা গ্রহন করছে পুলিশ।

বড়দিন থেকেই পর্যটকে পরিপূর্ণ দিঘা। ১০০শতাংশ বুকিং নিয়ে দিঘার ৭০০হোটেল এখন টইটম্বুর। এরা তো ছিলেনই। শুক্রবার তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা ডে-ট্রিপার বা পিকনিক পার্টি। বাস, গাড়ি, ম্যাটাডোর, চারচাকা আর বাইক আসছে ঝাঁকে ঝাঁকে। শনিবার বছরের প্রথম দিন অর্ধলক্ষাধিক ভীড়ের চাপে কাঁপতে চলেছে সমুদ্র সুন্দরী। আর এই ভীড়কে কোভিড শাসনে রাখতেই কালঘাম ছুটছে প্রশাসনের। রাস্তার মোড়ে মোড়ে, সৈকত সরনী, বিচ জুড়ে চলছে কড়া নজরদারি।

কোভিড বিধি মানতে সামিল করা হয়েছে হোটেলগুলিকেও। সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়তে না পারে সে জন্য সমস্ত সর্তকতা নেওয়া হয়েছে হোটেলগুলি তরফ থেকে। মাস্ক এবং স্যানিটাইজারের পাশাপাশি কোভিড টেস্ট বাধ্যতামূলক। আর এসবের মাঝেও নতুন বছরের আগমনী বার্তায় ওল্ড দিঘা সৈকতাবাস লাগোয়া বিশ্ববাংলা উদ্যান, ব্লু ভিউ ঘাট সংলগ্ন দ্বিতীয় বিশ্ব বাংলা উদ্যান সহ সমস্ত এখন রঙিন আলোর সাজে রাঙিয়ে উঠেছে। অমরাবতী পার্ক থেকে সায়েন্স পার্ক জমজমাট সৈকত শহরে এখন নতুন বছরের ওম কুড়িয়ে নেওয়ার হুড়োহুড়ি।

- Advertisement -
Latest news
Related news