Wednesday, June 19, 2024

IIT Kharagpur: বছরে ২ কোটি টাকা বেতনের চাকরি! ট্রেন থেকে পড়ে গিয়ে পা খোয়ালেন আইআইটি খড়গপু্র পড়ুয়া

This year he has recorded in the campus of IIT Kharagpur. The world famous Google gave him a job in their company with a salary of 1 crore 72 lakh rupees per annum. Only a few months were left to join the job. Aritra Sen, a final year student of the mechanical engineering department of IIT Kharagpur, only needed to get his final degree but before that he lost his leg from the ankle in a fatal accident. Eyewitnesses said that within 30 seconds, the train had completely stopped on the platform, but the sectore one resident of Salt lake was not ready to spent that time. It is known that the Howrah Ghatshila local from Howrah was entering platform number four of Kharagpur station on Wednesday afternoon. As soon as the speed of the train slowed down, Aritra fell down from the platform while it was moving. The left leg was severely injured. At that time, a passenger of the train named Gautam Samant who witnessed the entire incident rushed the injured student to Kharagpur Railway Main Hospital. There, the left leg of the student was cut off. According to Railway Police and Rail Security Bahini sources, many people want to get down from the moving train earlier, especially among the youth, because of the idea that if the carriage is a little further from the foot over bridge or the subway while entering platform number three and four of the Kharagpur railway junction, this tendency is works And as a result such accidents happen.

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: এবছরই আইআইটি খড়পুরের (IIT Kharagpur) ক্যাম্পাসিংয়ে রেকর্ড করেছেন তিনি। বিশ্বখ্যাত গুগল (Google)তাঁকে তাদের প্রতিষ্ঠানে চাকরি দিয়েছে বছরে ১ কোটি ৭২ লক্ষ টাকার বেতনে। আর মাত্র কয়েক মাস বাকি ছিল পাকাপাকি ভাবে সেই চাকরিতে জয়েন করার। দরকার ছিল শুধু চূড়ান্ত ডিগ্রিটা হাতে পাওয়ার কিন্তু তারই আগেই মারাত্মক দুর্ঘটনায় নিজের একটি পা গোড়ালি থেকে হারালেন খড়গপুর আইআইটির মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ফাইনাল বর্ষের ছাত্র অরিত্র সেন। বুধবার দুপুরে খড়গপু্র স্টেশনের এই মর্মান্তিক ঘটনা আবারও প্রমাণ করে দিল, অসতর্কতা ও বেপরোয়া মনোভাব কী মর্মান্তিক পরিণতি আনতে পারে মানুষের জীবনে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, আর মাত্র ৩০ সেকেন্ডের মধ্যেই ট্রেনটি সম্পূর্ন দাঁড়িয়ে পড়েছিল প্ল্যাটফর্মে কিন্তু ওই টুকু সময় তর সয়নি ছাত্রটির।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

জানা গেছে বুধবার দুপুরে খড়গপুর স্টেশনের চার নম্বর প্ল্যাটফর্মে প্রবেশ করছিল হাওড়া থেকে আসা হাওড়া ঘাটশিলা লোকাল ( Howrah-Ghatsila Memu)। হাওড়া থেকে ওই ট্রেনে চড়েছিলেন সল্টলেকের সেক্টর ওয়ানের বাসিন্দা অরিত্র। এরপর ট্রেনটি খড়গপুর স্টেশনের চার নম্বর প্ল্যাটফর্মে ঢোকার পর যখন ট্রেনটির গতি একটু কম হয়েছে তখনই অরিত্র চলন্ত অবস্থায় নামতে গিয়ে  পাদানি থেকে হড়কে পড়ে যান‌‌। মারাত্মক জখম হয় বাম পা। সেই সময় গোটা ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ওই ট্রেনের যাত্রী গৌতম সামন্ত নামে এক রেলকর্মী জখম হওয়া পড়ুয়াকে দ্রুত খড়গপুর রেলওয়ে মেইন হাসপাতালে নিয়ে যান‌। সেখানেই পড়ুয়ার বাম পা কেটে বাদ দেওয়া হয়।

গৌতম সামন্তই দ্রুত বাড়ির মোবাইল নম্বর জোগাড় করে জখম পড়ুয়ার মা অমিত্রা সেনকে খবর দেন।  ঘটনার খবর যায় আইআইটি কর্তৃপক্ষর কাছে। আইআইটি খড়গপু্র কর্তৃপক্ষ অরিত্রকে ক্যাম্পাসের মধ্যে অবস্থিত বি সি রায় হাসপাতালে (BC Roy Hospital)নিয়ে যায়। এরপর সন্ধ্যায় জখম অরিত্রকে কলকাতার একটি হাসপাতালে পাঠানো হয়। খড়গপুর রেল পুলিশ ( GRP Kharagpur) জানিয়েছে আইআইটির এক ছাত্র তাড়াহুড়ো করে চলন্ত ট্রেন থেকে নামতে গিয়ে জখম হয়েছেন।  খড়গপুর আইআইটির নিবন্ধক (Registrer, IIT Kharagpur) তমাল নাথ জানিয়েছেন ছাত্রটির আরও ভালো চিকিৎসার জন্য কলকাতার একটি হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

রেল পুলিশ ও রেল সুরক্ষাবাহিনী সূত্রে জানা গেছে খড়গপু্র রেল জংশনের তিন এবং চার নম্বর প্ল্যাটফর্মে ঢোকার সময় গাড়ির কামরা ফুট ওভার ব্রিজ অথবা সাবওয়ে থেকে একটু বেশি এগিয়ে গেলে বেশি হাঁটতে হবে এই ধারনা থেকেই অনেকে চলন্ত ট্রেন থেকে আগেই নেমে পড়তে চান বিশেষ করে তরুণদের মধ্যে এই প্রবনতা কাজ করে। আর তার ফলেই এই ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে যায়। ট্রেনটি আর একটু দ্রুত থাকলে লাইনের ভেতরে চলে গিয়ে প্রাণহানী অবধি হতে পারত। রেলের তরফে জানানো হয়েছে বারবার ঘোষনা করা হয় যে চলন্ত ট্রেনে ওঠানামা করবেন না তারপরও এই ঘটনা দুর্ভাগ্যজনক। এখন অরিত্রর ফাইনাল পরীক্ষা ও চাকরি দুই ই অনিশ্চয়তার মুখে।

- Advertisement -
Latest news
Related news