Wednesday, May 22, 2024

New Covid Protocol : কালীপূজা, ছটপূজায় নাইট কার্ফুতে ছাড়! অফিসে ১০০% হাজিরা, রাজ্যে আরও শিথিল হল কোভিড (COVID-19) বিধি

The new notification issued on Friday will be effective on October 31. The ban says night curfew will remain in force in November. That is The ban will be in place from 11pm to 5am. However, there will be no curfew for 7 days. These 7 days are for Kalipujo, Deepavali, Chhatpujo from 2nd to 5th November and from 10th to 11th November.

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: আগামী ১৬ই নভেম্বর থেকে রাজ্যের বিদ্যালয়গুলিতে শুরু হচ্ছে পঠন পাঠন। আপাততঃ নবম থেকে দ্বাদশ এই চারটি শ্রেণীর পঠন পাঠন চালু হচ্ছে। তারই মধ্যে আসছে বাঙালির আরেক দফা উৎসব। তারই মধ্যে রাজ্যে নতুন কোভিড বিধি চালু করল নবান্ন। আর সেই বিধিনিষেধে বেশ কিছু ছাড় দিল রাজ্য সরকার।শুক্রবার জারি করা এই নতুন বিজ্ঞপ্তি আগামী ৩১ অক্টোবর বলবৎ করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

এই বিধি নিষেধে বলা হয়েছে আগামী নভেম্বর মাসেও বলবৎ থাকবে নাইট কার্ফু। অর্থাৎ রাত ১১টা থেকে ভোর ৫টা অবধি বাইরে বেরুনোর ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি থাকবে। তবে ৬দিন এই কার্ফু থাকবেনা। এই ৬দিন হল কালীপুজো, দীপাবলি, ছটপুজোর জন্য ২ থেকে ৫ নভেম্বর এবং ১০ থেকে ১১ নভেম্বর।

করোনা অতিমারীর পর এই প্রথম সরকারি ও বেসরকারি অফিস গুলিতে ১০০ শতাংশ কর্মীর উপস্থিত থাকতে পারবে বলে জানানো হয়েছে। অর্থাৎ এবার থেকে প্রত্যেককেই প্রতিদিন অফিস যেতে হবে। শপিং মল, মার্কেট কমপ্লেক্স, রেস্তরাঁ, পানশালা, স্পা, জিমেও ৭০ শতাংশ উপস্থিত থাকতে পারবে বলে জানানো হয়েছে।প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার কোচিং সেন্টারেও ৭০ শতাংশ পড়ুয়ার উপস্থিতি থাকতে পারবে। সামাজিক অনুষ্ঠান যেমন লজ বা হলে বিয়ের ক্ষেত্রে ৭০ শতাংশ জমায়েতের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

এই বিধিতে বিনোদন মূলক ক্ষেত্রে যেমন সিনেমা হল, মঞ্চ, অডিটোরিয়াম, স্টেডিয়ামে ৭০ শতাংশ দর্শকে ছাড় দেওয়া হয়েছে। সিরিয়ালের শুটিং, অডিশন, অডিও রেকর্ডিংয়ে ৭০ শতাংশ কলাকুশলীকে ছাড়। সব চেয়ে বড় কথা এবার কলাকুশলীদের নিয়ে সিনেমা, সিরিয়ালের শুটিং করা যাবে আউটডোরেও করা যাবে বলে জানানো হয়েছে। সিনেমা হল খোলা থাকবে রাত ১১টা পর্যন্ত।

বিয়েবাড়ি ও খোলা জায়গায় অন্যান্য অনুষ্ঠানের ক্ষেত্রে এবার থেকে ৭০ শতাংশ জনতার উপস্থিতিতে ছাড় দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ করোনা আতঙ্ক কাটিয়ে প্রায় ৬ মাস পর ধীরে ধীরে স্বাভাবিক ছন্দে ফেরাতে বদ্ধপরিকর রাজ্য সরকার। তবে শারীরিক দূরত্ববিধি বজায় রেখে সবরকম শিথিলতা প্রযোজ্য। সব ক্ষেত্রেই মাস্ক এবং শারীরিক দূরত্ববিধি মেনে চলা বাধ্যতামূলক নীতি যথারীতি বহাল রয়েছে। এছাড়াও করোনা বিধি সম্পর্কিত যেকোনও বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসনের হাতে ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে পরিস্থিতি বিচার করে বিধিনিষেধ আরোপ করার এবং নাগরিকরা তা মানতে বাধ্য থাকবে।

- Advertisement -
Latest news
Related news