Monday, May 20, 2024

TMC Leaders Arrested: থমথমে গড়বেতায় গ্রেপ্তার ৫তৃনমূল নেতা সহ ৮জন, আটক কর্মাধ্যক্ষ! প্রতিষ্ঠা দিবসে পতাকাই তুলতে পারলনা তৃনমূল

- Advertisement -spot_imgspot_img
বোমা উদ্ধার করছেন পুলিশ কর্মীরা

নিজস্ব সংবাদদাতা: বছরের শেষ দিনেই পশ্চিম মেদিনীপুরের গড়বেতার খড়কুশমা এলাকায় তৃনমূল কংগ্রেসের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ ও দলীয় কার্যালয় ভাঙচুরের পর তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে সাধারণ মানুষের মধ্যে। বালি মাফিয়াদের বাড়বাড়ন্তর মধ্যে এলাকার দখলদারি নিয়ে তৃনমূল কংগ্রেসের দুই গোষ্ঠীর সংর্ঘষ ও এলাকায় দুর্বৃত্তদের দাপট বাড়তে থাকায় প্রচন্ড ক্ষুব্ধ মানুষ। তীব্র জনরোষের ভয়ে এলাকায় পৌঁছাতে পারেননি তৃনমূল কংগ্রেসের গড়বেতা ব্লকের নেতারা, স্থানীয় নেতারা পালিয়েছেন পুলিশের ভয়ে। ফলে দলের পতাকা তুলতে পারেনি তৃনমূল কংগ্রেস। প্রতিষ্ঠা দিবস পালন হয়নি ভাঙিপাড়া, বাসস্ট্যান্ড পাড়া, মদনহাঁড়িতে। ১লা জানুয়ারি দলের ২৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে থমথম করছে গড়বেতার এই এলাকা। এলাকা আর বালির দখলদারি নিয়ে বছরের শেষদিনে ভাঙচুর হওয়া দলীয় কার্যালয়টি কার্যত জনশূন্য হয়ে পড়ে রয়েছে। মাঝেমধ্যে টহল দিয়ে যাচ্ছে গড়বেতা থানার পুলিশ কর্মীরা।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

শুক্রবার রাতে তীব্র শীতের মধ্যেই অভিযুক্ত তৃনমূল নেতা কর্মীদের বাড়িতে বাড়িতে তল্লাশি চালিয়েছে পুলিশ। কাউকে বাড়ি থেকে বের করে মাঝরাতেই গাড়িতে তুলে থানায় নিয়ে গেছে পুলিশ। শনিবার সকাল অবধি গ্রেপ্তার হয়েছেন মোট ৮ জন তৃনমূল কংগ্রেস নেতা কর্মী যাঁর মধ্যে রয়েছে গড়বেতা ১ পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য মহম্মদ মন্ডল, সরফরুদ্দিন মন্ডল, আনসার আলি সহ ৫ নেতা। গড়বেতা ১ পঞ্চায়েত সমিতির কৃষি কর্মাধ্যক্ষ বাচ্চু কুমার দে কে আটক করে টানা জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছে পুলিশ। উল্লেখ্য এই বাচ্চু কুমার দের বিরুদ্ধে সিপিএম নেতা জিতেন নন্দী, গণেশ দুলে খুনের অভিযোগ রয়েছে। এলাকায় বালি মাফিয়া হিসাবে কুখ্যাতি রয়েছে তাঁর।

শনিবার বেলায় ৮ জনকেই গড়বেতার আদালতে তুলেছিল পুলিশ। এরমধ্যে ৪জনকে নিজস্ব হেফাজতে নিয়ে এসে জিজ্ঞাসাবাদ চালানো হচ্ছে বলে জানা গেছে। বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি চালিয়ে শনিবার বিকেল অবধি মোট ১৭টি তাজা বোমা উদ্ধার করেছে পুলিশ। উত্তেজনা থাকায় এলাকায় এলাকায় পুলিশি টহল চলছে। এলাকার মানুষের বক্তব্য বালি খাদান মোরাম বোল্ডার খাদানের সিন্ডিকেট রাজের গোষ্ঠী কোন্দল থেকেই শুক্রবার সকাল থেকে এলাকা দখল নিতে মুড়ি মুড়কির মতো বোম বাজিতে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে গড়বেতার খড়কুশমা। গড়বেতার দুই ব্লক নেতা সেবাব্রত দাস ও অসীম সিংহ গোষ্ঠীর মধ্যে চলে ব্যাপক বোমাবাজি। হামলার ঘটনায় ছয়টি মতো দোকানঘর ভাঙচুর হয়। আহত হন বেশ কয়েকজন সাধারণ মানুষ। তিনজন আহত কে গড়বেতা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ভাঙচুর হয় নিজেদেরই কার্যালয়। ফলে মানুষ প্রচন্ড ক্ষুব্ধ হয়ে রয়েছেন।

পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি সুজয় হাজরার দাবি করেছেন, এ ঘটনা ঘটিয়েছে দুষ্কৃতীরা। ওই ক্ষতিগ্রস্ত দোকানগুলি মেরামত করিয়ে দেবে তৃনমূল এমন কথাও বলা হয়েছে।এলাকার মানুষের বক্তব্য, তৃণমূলের ছত্রছায়াতেই ওই দূষ্কৃতিরা লালন পালন হয় এবং তাদের হাতিয়ার করেই ভোট লুঠ সহ তোলা আদায় আর বেআইনি বালি মোরাম বোল্ডার খাদান থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা আদায় হয় যার ভাগ পায় নেতারা। মানুষ প্রশ্ন তুলেছে, ঘটনা যদি তৃণমূল না করে থাকে তাহলে ক্ষতিগ্রস্ত দোকানগুলি মেরামত করার আশ্বাস দিচ্ছে কেন?

- Advertisement -
Latest news
Related news