Monday, May 20, 2024

School Open: চাপ বাড়ছে রাজ্যের ওপর, ফেব্রুয়ারিতেই খুলতে চলেছে স্কুল? পাড়ায় শিক্ষালয়ের বিরোধিতায় শিক্ষক সংগঠন

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ফেব্রুয়ারি মাসেই রাজ্যের স্কুল কলেজ সহ সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে যেতে পারে এমনটাই জানা যাচ্ছে রাজ্যের শিক্ষাদপ্তরের সূত্রে। যদিও বিষয়টি নিয়ে সিদ্ধান্তের চূড়ান্ত ভার মুখ্যমন্ত্রীর ওপর ছেড়ে রেখেছেন বিকাশ ভবন। শিক্ষা দপ্তরের একটি সূত্র জানিয়েছে, মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক দুটি পরীক্ষা নেওয়া সহ অন্যান্য আনুষঙ্গিক বিষয়ের জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত রয়েছেন তাঁরা। চাইলে ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই স্কুল খুলে দেওয়া যেতে পারে। এই বিষয়টি অবগত করানো হয়েছে নবান্নকেও। বাকিটা নির্ভর করছে মুখ্যমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের ওপর। শিক্ষাদপ্তরের এই মনোভাব প্রতিফলিত হয়েছে রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রীর কথাতেও। সোমবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু (Bratya Basu) জানিয়েছেন, ধাপে ধাপে স্কুল খুলে দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

সোমবার প্রাথমিক পঠনপাঠনের নতুন উদ্যোগ হিসাবে ‘পাড়ায় শিক্ষালয়’ প্রকল্পের উদ্বোধন করতে গিয়ে ব্রাত্য বসু বলেন,” স্কুল খুলে আবার যাতে স্কুল বন্ধ করতে না হয়, সে কারণে গোষ্ঠী সংক্রমণ না বাড়িয়ে আগে দরকার প্রতিবিধান। রাজ্যও স্কুল খোলার পক্ষেই। পড়ুয়াদের স্বার্থের কথা মাথায় রেখেই সমস্ত বিষয়টি পর্যালোচনা করা হচ্ছে। আমরা চাই পরিস্থিতি দ্রুত স্বাভাবিক হোক তবে স্কুল কবে খুলতে পারে তা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে ঘোষণা করবেন।’

এদিকে ‘পাড়ায় শিক্ষালয়’ সরকারের এই নতুন উদ্যোগের বিরোধিতা করছে রাজ্যের শিক্ষক সংগঠনগুলি। তাঁরা বলছেন স্কুল শিক্ষার বিকল্প হয়না এই পদ্ধতি। এই সব করে আরও বিলম্বিত করা হচ্ছে স্বাভাবিক পঠনপাঠন চালুর প্রক্রিয়াকে। দ্রুত স্কুল খোলার জন্য তাঁরা সরকারের ওপর চাপ অব্যাহত রেখেছেন। শিক্ষক, শিক্ষাকর্মী, শিক্ষানুরাগী ঐক্য মঞ্চের রাজ্য সম্পাদক কিঙ্কর অধিকারী বলেন, “পাড়ায় শিক্ষালয় নয়, অবিলম্বে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চিরাচরিত ব্যবস্থায় শ্রেণিকক্ষে পঠনপাঠন চালু করতে হবে।” ২৫তারিখ, আগামীকালই পূর্ণাঙ্গ স্কুল খোলার দাবি নিয়ে কলকাতা অভিযানের ডাক দিয়েছে এই মঞ্চ।

অন্যদিকে বারংবার সরকারের শিক্ষা আধিকারিকদের কাছে স্কুল খোলার দাবিতে ডেপুটেশন দিয়ে চলছে রাজ্যের বিদ্যালয় প্রধানদের সর্ব বৃহৎ সংগঠন অ্যাডভান্সড সোসাইটি ফর হেডমাস্টার্স অ্যান্ড হেডমিস্ট্রেসেস। এমনকি মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্য স্কুল খোলার দাবি নিয়ে খোলা চিঠিও দিয়েছেন তাঁরা। এই সংগঠনের বক্তব্য, পাড়ায় পাড়ায় বা মাঠে ঘাটে নয় পড়ুয়াদের তাঁদের স্কুল ফিরিয়ে দিক সরকার এই দাবি তুলে অ্যাডভান্সড সোসাইটি ফর হেডমাস্টার্স অ্যান্ড হেডমিস্ট্রেসেসের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক চন্দন মাইতি বলেন, “পাড়ায় নয়, মাঠে নয়, ক্লাসরুমের শিক্ষা চাই। স্বাভাবিক পঠনপাঠন ফের শুরু করার জন্য শিক্ষাঙ্গনের বিকল্প নেই।”

স্কুল খোলার দাবি নিয়ে পড়ুয়া, অভিভাবকদের পাশাপাশি সোচ্চার হচ্ছেন বিভিন্ন মহল। এমনকি চিকিৎসকদের একটি অংশ বলেছে, টানা বাড়িতে থাকার ফলে মানসিক অবসাদে ভুগছে ছাত্রছাত্রীরা। স্কুল খোলা নিয়ে মাঠে নেমেছেন রাজনীতিকরাও। বিরোধীদের প্রশ্ন, বার, পার্লার, সেলুন-সহ বিনোদনের সব জায়গা খোলা। তবে স্কুল বন্ধ কেন?
এই চাপ ক্রমশঃ বাড়ছে সরকারের ওপর। সেই জায়গা থেকে সরকারের পক্ষেও স্কুল কলেজ খোলার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলে জানা গেছে। কলেজ এবং নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী ফেব্রুয়ারিতেই খুলে দিতে চায় শিক্ষা দপ্তর। তারপর ষষ্ঠ থেকে অষ্টম এবং তারপর প্রাথমিক বিদ্যালয় খোলা হবে এমনটাই পরিকল্পনা রয়েছে। শিক্ষাদপ্তরের ভাবনায় ফেব্রুয়ারিতে এই প্রক্রিয়া চালু করে এপ্রিলের মধ্যে শেষ করার ইচ্ছা রয়েছে। প্রাথমিকের ক্ষেত্রে সরকার বুঝে নিতে চাইছে মার্চে নতুন করে সংক্রমনের আভাস রয়েছে কিনা?

- Advertisement -
Latest news
Related news