Monday, May 20, 2024

Nandigram Murder: ভর দুপুরে নন্দীগ্রামে খুন যুবক ! চাঞ্চল্য এলাকায়

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: ফের খুন নন্দী গ্রামে। ভর দুপুরে বাড়ি থেকে ঢিল ছোঁড়া দূরত্বে খুন হলেন এক যুবক। নিহত যুবকের পেটে ছুরি ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছিল বলেই প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে। যে কারনে অতিরিক্ত রক্তপাতে ওই যুবকের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে। পুলিশ মৃতদেহটি সংগ্ৰহ করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। রিপোর্ট আসলেই মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে পুলিশ জানিয়েছে।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে মৃত যুবকের নাম সেক দুলাল। বয়স ৩৫ থেকে ৩৭ বছরের মধ্যে। ঘটনাকে ঘিরে উত্তেজনা ছড়িয়েছে এলাকায়, খবর পেয়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে নন্দীগ্রাম জুড়ে। বিধানসভা নির্বাচনের পর রাজনৈতিক হিংসা, খুন, সিবিআই তদন্ত ইত্যাদিকে ঘিরে চাঞ্চল্য আগে থেকেই ছিল তারই মধ্যে বৃহস্পতিবারের ঘটনায় আরেকদফা চাঞ্চল্য যুক্ত করেছে। যদিও পুলিশ এই ঘটনাকে প্রাথমিকভাবে পুরোপুরি অরাজনৈতিক ও ব্যক্তিগত প্রতিহিংসার কারন বলে জানিয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে নিহত সেক দুলালের বাড়ি নন্দীগ্রাম-২ ব্লকের অন্তর্গত তেরপেখ্যা এলাকায়। বৃহস্পতিবার দুপুর দুটা আড়াই টা নাগাদ বাড়ির অদুরেই রাস্তার উপর রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। খবর পেয়েই ছুটে আসে তাঁর পরিবারের লোকের। স্থানীয় প্রতিবেশীদের সাহায্য নিয়েই তাঁরা দুলালকে নিয়ে প্রথমে বয়াল স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যান কিন্তু অবস্থা গুরুতর হওয়ায় চিকিৎসকরা দুলালকে নন্দীগ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে যায়। ওখানেই চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষনা করেন তাঁকে।

তাঁর মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়তেই এলাকায় প্রবল উত্তেজনা তৈরি হয়। পরিস্থিতি সামাল দিতে ছুটে যায় পুলিশ। বর্তমানেও ওই এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করে প্রাথমিক ভাবে এই ঘটনার পেছনে পুরানো আক্রোশ রয়েছে বলে মনে করছে। স্থানীয় একটি সূত্রে জানা গেছে সেক দুলালের পরিবারের এক গৃহবধূর সাথে অন্য একজনের অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে এমনটাই মনে করত সে। বিষয়টি নিয়ে পরিবারেও অশান্তি ছিল।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বাড়ি থেকে বেরিয়ে দুলাল যখন তেরোপেক্ষা বাসস্ট্যান্ডের দিকে যাচ্ছিল তখন বাজারের কাছাকাছি ওই ব্যক্তির সঙ্গে দেখা হয়ে যায় দুলালের। অবৈধ সম্পর্কে অভিযুক্ত ব্যক্তি তার স্ত্রী ও সন্তানের সাথে কোথাও যাচ্ছিল। মুখোমুখি দেখা হতেই ওই ব্যক্তির সাথে দুলালের বচসা শুরু হয় পরে যা হাতাহাতিতে পরিনত হয়। এই সময় ওই ব্যক্তি নিজের ব্যাগ থেকে ছুরি বের করে দুলালের পেটে ঢুকিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। দুলাল ঘটনা স্থলেই পড়ে থাকে। পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

এই প্রতিবেদন লেখা অবধি অভিযুক্ত গ্রেপ্তার হয়নি। পুলিশ তার সন্ধানে খোঁজ চালাচ্ছে বলে জানা গেছে। স্থানীয় মানুষেরা অভিযুক্তর আচরণ ও খুন করার যে বিবৃতি দিয়েছে তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। যদি স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি সঠিক হয় তবে এটাও দেখার যে অভিযুক্ত কেন ব্যাগে ছুরি নিয়ে ঘুরে বেড়াত।

- Advertisement -
Latest news
Related news