Saturday, April 20, 2024

Kharagpur Midnapore Jhargram Rain Warning: খড়গপু্রের ওপর সক্রিয় মৌসুমী অক্ষরেখা! মহালয়ায় সক্রিয় হচ্ছে ঘূর্ণাবর্ত, রবিবার থেকে ভারী বর্ষণ খড়গপু্র, মেদিনীপুর ঝাড়গ্রামে

There was a fear that the two Medinipurs were going to float in the heavy rain due to low pressure again at the beginning of Devi Paksha. Meteorologists think that this fear is going to be proven true. In particular, disaster may intensify in various areas of Kharagpur, Medinipur, Jhargram and Bankura districts. Several areas of Kanthi, Egra and Haldia areas of East Medinipur district are in danger. Sources from the Meteorological Department said that this time the new danger vortex! Which may start in the Bay of Bengal within the next 48 hours. And if that happens, there may be heavy rains in South Bengal including Kolkata in the last week before Mahalaya. At least, Alipur Meteorological Department has expressed such fears.The Alipore Weather Department has informed that a cyclone is going to become active in North Bay of Bengal on Sunday. Due to which low pressure may be created next week. And as a result heavy rain is expected in various districts of South Bengal. Meteorologists observe active monsoon trough in South Bengal at the moment. That axis stretches from Purulia to Jhargram, Kharagpur and reaches Digha to the Bay of Bengal. On the other side there is another trough of low pressure over Gangetic West Bengal to Bangladesh. According to the Meteorological Department, the deep depression in the Bay of Bengal is located in Madhya Pradesh in the form of a distinct depression. It will change course again and become stronger again. It is likely to develop into a deep depression over South West Uttar Pradesh during the next 48 hours moving north and northwest.

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: আশংকা ছিলই দেবীপক্ষের শুরুতেই ফের নিম্নচাপের কবলে পড়ে ভারী বর্ষণে ভাসতে চলেছে দুই মেদিনীপুর। এবার সেই আশংকাই সত্যি প্রমাণিত হতে চলেছে বলে মনে করছেন আবহাওয়াবিদরা। বিশেষ করে দুর্যোগ ঘনাতে পারে খড়গপু্র, মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম ও বাঁকুড়া জেলার বিভিন্ন এলাকায়। বিপদের মুখে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কাঁথি, এগরা ও হলদিয়া এলাকার বেশ কিছু অঞ্চল। আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানা গেছে এ বার নতুন বিপদ ঘূর্ণাবর্ত! আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই বঙ্গোপসাগরে যার সূচনা হতে পারে। আর তা যদি হয়, তবে মহালয়ার আগের শেষ সপ্তাহেও ভারী বৃষ্টি হতে পারে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে। অন্তত তেমনই আশঙ্কা প্রকাশ করেছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

আলিপুর আবহওয়া দফতর জানাচ্ছে আগামী রবিবার উত্তর বঙ্গোপসাগরে একটি ঘূর্ণাবর্ত সক্রিয় হতে চলেছে। যার জেরে আগামী সপ্তাহে তৈরি হতে পারে নিম্নচাপ। আর তর ফলে ভারী বৃষ্টির আশঙ্কা দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলাগুলিতে। আবহাওয়াবিদ দের পর্যবেক্ষন দক্ষিণবঙ্গে এই মুহুর্তে সক্রিয় মৌসুমী অক্ষরেখা। ওই অক্ষরেখাটি পুরুলিয়া থেকে ঝাড়গ্রাম, খড়গপু্রের উপর দিয়ে দিঘা ছুঁয়ে বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। অন্য দিকে আরও একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখা রয়েছে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপর দিয়ে বাংলাদেশ পর্যন্ত।

আবহাওয়া দফতর জানাচ্ছে, বঙ্গোপসাগরের গভীর নিম্নচাপ সুস্পষ্ট নিম্নচাপ রূপে মধ্যপ্রদেশে অবস্থান করছে। এটি ফের গতিপথ পরিবর্তন করে আবার শক্তিশালী হবে। উত্তর ও উত্তর পশ্চিম দিকে এগিয়ে দক্ষিণ পশ্চিম উত্তর প্রদেশে এটি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে আগামী ৪৮ ঘণ্টায়। মৌসুমী অক্ষরেখা রাজস্থান থেকে মধ্যপ্রদেশের সুস্পষ্ট নিম্নচাপের উপর দিয়ে ঝাড়খন্ড হয়ে পশ্চিমবঙ্গের পুরুলিয়া ও দীঘার উপর দিয়ে উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত। নতুন করে একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হতে পারে রবিবার ১৮ সেপ্টেম্বর। উত্তর ওড়িশা ও পশ্চিমবঙ্গ উপকূলে এই ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হওয়ার সম্ভাবনা। পরবর্তী আটচল্লিশ ঘন্টায় শক্তি বাড়িয়ে এটি নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায়।

অন্যদিকে, বঙ্গোপসাগরে ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হওয়ার অনুকূল পরিবেশ তৈরি হয়েছে। এই সপ্তাহান্তে অর্থাৎ শনি কিংবা রবিবার সাগরে একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হতেও পারে। সে ক্ষেত্রে আগামী সপ্তাহেও বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকছে বাংলায়। টানা প্রায় এক সপ্তাহের বৃষ্টিতে নাজেহাল বাংলায় সে ক্ষেত্রে পুজোর প্রস্তুতিতে বড় প্রভাব পড়বে। যেহেতু দেবীপক্ষ শুরু হতে আর ন’দিন বাকি। রাজ্যের বেশ কিছু মণ্ডপ তৃতীয়া কিংবা চতুর্থীতেই খুলে দেওয়া দর্শকদের জন্য। ফলে কলকাতা-সহ গোটা রাজ্যে এখন পুজোর তোড়জোড় তুঙ্গে। এর মধ্যেই এই ঘূর্ণাবর্তের পূর্বাভাস নতুন করে আশঙ্কার মেঘ জমাল। বিশেষ করে পুজোর বাজারও মাটি হওয়ার আশংকা করা হচ্ছে।

- Advertisement -
Latest news
Related news