Saturday, May 25, 2024

BJP North Bengal: ভাঙনের বাজনার মাঝেই বৈঠকে গরহাজির উত্তর ৫বিধায়ক! সিঁদুরে মেঘ দেখছে বিজেপি

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: ২৪ঘন্টা পের হয়নি বিজেপি ছেড়ে তৃনমূলে যোগ দিয়েছেন ২ বিধায়ক। বিষ্ণুপুরের তন্ময় ঘোষের পর তৃনমূলে গেছেন বাগদার বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাস! বিজেপি ছেড়ে মঙ্গলবার দুপুরেই সম্ভবত তৃণমূলে ফিরছেন তিনি। ক্রমশ শক্তি বাড়ছে রাজ্যের শাসক দলের। বিজেপি আশঙ্কা করছে ভাঙনের ফাটল আরও প্রশস্থ হতে পারে। তারই মধ্যে বুধবার শিলিগুড়িতে বৈঠকে বসেছিলেন উত্তরবঙ্গের বিধায়করা।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

এদিনের বৈঠকের নেতৃত্বে ছিলেন অমিতাভ চক্রবর্তী, রাজু বিস্তা ও জন বারলা। তবে এই বৈঠকে হাজির হননি মোট ৭ বিধায়ক। যার মধ্যে উত্তরবঙ্গের ই ৫জন। দলবদলের আবহে এই বিধায়কদের অনুপস্থিতি আশঙ্কা বাড়িয়েছে পদ্ম শিবিরে।

বুধবার শিলিগুড়িতে উত্তরবঙ্গের ২৯ জন বিধায়ককে নিয়ে বৈঠকের আয়োজন করেছিল বিজেপি। নেতৃত্বে থাকার কথা ছিল শুভেন্দু অধিকারীর। তবে শুভেন্দু অধিকারীর বদলে এদিনের বৈঠকে নেতৃত্ব দেন অমিতাভ চক্রবর্তী। জানা গিয়েছে, এদিনের বৈঠকে গরহাজির ছিলেন উত্তরবঙ্গের ৫ বিধায়ক-সহ মোট ৭ জন। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন, মালদহের গোপালচন্দ্র সাহা। কুমারগ্রামের মনোজ ওঁরাও, বালুরঘাটের সত্যেন্দ্রনাথ রায় ও হবিবপুরের জুয়েল মুর্মু। এই অনুপস্থিতি উসকে দিয়েছে দল বদলের জল্পনা। কারণ, বাগদার বিধায়ক তৃণমূলে যোগ দেওয়ার দিনই কানাঘুষো শোনা যাচ্ছিল যে সত্যেন্দ্রনাথ রায়ও বদলাতে পারেন দল।

বিজেপি সূত্রে খবর, বালুরঘাট আর গঙ্গারামপুর বিধায়ক আগেই জানিয়েছিলেন যে তাঁরা বৈঠকে যেতে পারবেন না। তবে বাকি ৩ জনের সম্পর্কে কোনও তথ্যই জানে না দল। এবিষয়ে জুয়েল মুর্মু জানিয়েছেন তিনি স্ট্যান্ডিং কমিটির বৈঠকে ছিলেন। তবে এবিষয়ে কোনও মন্তব্য করেননি গোপাল সাহা। এখনও পর্যন্ত যোগাযোগ করা যায়নি বাকি বিধায়কদের সঙ্গে।

উল্লেখ্য, এদিনের বৈঠক উত্তরবঙ্গের বিধায়কদের নিয়ে ডাকা হলেও তালিকায় দক্ষিণবঙ্গের ২ জনের নাম ছিল। তবে তারা যোগ দেননি বৈঠকে। একসঙ্গে একাধিক বিধায়কের অনুপস্থিতি দুশ্চিন্তায় ফেলেছে রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বদের। তাঁরা আশঙ্কা করছেন, ভেতরে বিজেপি বিধায়কদের দলে টানার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে তৃনমূল। কারন বিজেপির মোট বিধায়ক সংখ্যার এক তৃতীয়াংশ কে ভাঙিয়ে নিয়ে আসতে না পারলে মুকুল রায় সহ অন্যান্য দলত্যাগীদের বিধায়কপদ খারিজ হয়ে যেতে পারে। যে কারনে তৃনমূল চাইছে আরও বেশি সংখ্যায় বিজেপি বিধায়কদের তৃনমূলে  যোগদান করাতে।

- Advertisement -
Latest news
Related news