Monday, April 15, 2024

Midnapore: পশ্চিম মেদিনীপুরের বিদ্যালয় সভাপতি সকাল থেকে রাত্রি মদে ডুবে থাকেন! বিধায়ককে খোলা চিঠি ‘অভিভাবক’দের

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: গরমের ছুটি, স্কুল বন্ধ কিন্তু সক্রিয় রয়েছেন এক শ্রেণীর ‘অভিভাবক’। স্কুলের দেওয়ালে, ফটকের সামনে স্কুল পরিচালন সভাপতির সচিত্র লিফলেট সাঁটিয়ে খোলা চিঠি পাঠিয়েছেন স্থানীয় বিধায়কয়ের কাছে। সঙ্গে গুনাবলি হিসাবে উল্লেখ করা হয়েছে সদ্য মনোনীত স্কুল সভাপতির যার শুরুতেই বলা হয়েছে,’ সভাপতি সকাল থেকে রাত্রি অবধি মদে ডুবে থাকেন!’ দ্বিতীয় গুণাবলিতে স্কুল সভাপতিকে অভিযুক্ত করা হয়েছে এলাকার বিভিন্ন মেলায় উনি জুয়া জাতীয় খেলা যেমন তেতাস, ডাব্বু, জুয়া ইত্যাদি খেলার প্রচলন করেছেন যা কিনা স্বাধীনতার পর থেকে ওই এলাকায় কোনও দিন খেলা হয়নি। যদিও বিধায়ককে লেখা ওই খোলা চিঠি স্কুলের দেওয়াল, সাইকেল স্ট্যান্ড ছাড়িয়ে এখন সোশ্যাল মিডিয়াতেও উঠে এসেছে ফলে তোলপাড় এলাকা। ঘটনা পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার নারায়নগড় বিধানসভার সরিষা কুনারপুর অঞ্চল হাইস্কুলের।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

জানা গেছে সম্প্রতি এই স্কুলের পরিচালন সমিতির সভাপতি মনোনীত হয়েছেন নারায়নগড় পঞ্চায়েত সমিতির অন্তর্গত ৪নম্বর কুনারপুর গ্রামপঞ্চায়েতের নির্বাচিত সদস্য কিঙ্কর গায়েন। কিঙ্করবাবু আহিরা সংসদ থেকে এই নিয়ে দ্বিতীয়বার নির্বাচিত হয়েছেন। পাশাপাশি ওই স্কুলেরও তিনি তিনবার পরিচালন কমিটির সদস্য। এই কিঙ্কর গায়েনকে স্কুলের পরিচালন সভাপতি মনোনীত করার পর থেকেই একদল ‘অভিভাবক’ এর বিরোধিতা শুরু করেছেন বলে জানা গেছে। এই কাজ সম্ভবতঃ তাঁদেরই। উল্লেখিত ওই লিফলেটে শুধু মাত্র মদ বা জুয়ার বিষয় নয়, উঠে এসেছে নারী ঘটিত বিভিন্ন অভিযোগও।

কিঙ্কর গায়েন মহাশয়ের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘ এক শ্রেণীর মানুষ পরিকল্পনা করে এই সমস্ত ঘৃণ্য চক্রান্ত করছে। আমাকে দল এই পদের যোগ্য মনে করায় সভাপতি করেছে। ইতিপূর্বে দু’বার আমি পরিচালন কমিটির সদস্য ছিলাম। কারা এই কাজ করছে তা খুঁজে বের করা হবে। পুলিশ ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থলে এসে ঘুরে গেছে, তদন্ত শুরু হয়েছে। আশাকরি দ্রুত খুঁজে বের করা হবে চক্রান্তকারীদের।’ উল্লেখ্য লিফলেট পড়ার খবর পাওয়ার পরই পুলিশ এসেছিল সরিষা- কুনারপুর হাইস্কুলে। তাঁরা কিছু লিফলেট উদ্ধার করে নিয়েও গেছে।

স্থানীয় সূত্রে আরও জানা গেছে, বিধানসভা নির্বাচনের পর কুনারপুর গ্রামপঞ্চায়েতের প্রধান করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল কিঙ্কর বাবুকে। অনাস্থা প্রস্তাব এনে চলতি প্রধানকে সরিয়ে কিঙ্কর গায়েনকে প্রধান করার উদ্যোগ নেওয়া হয়। কিন্তু তখনও তীব্র অসন্তোষ তৈরি হচ্ছে টের পেয়ে বিষয়টিতে হস্তক্ষেপ করে দল। ফলে সে যাত্রায় প্রধান করা সম্ভব হয়নি কিঙ্কর গায়েনকে। এখন স্কুল সভাপতি নিয়ে জল কতদূর গড়ায় সেটাই এখন দেখার।

- Advertisement -
Latest news
Related news