Tuesday, April 16, 2024

Digha: দিঘায় বন্ধুদের বীরত্ব দেখাতে গিয়ে উত্তাল সমুদ্রের বলি পর্যটক! হোটেলে হার্ট আ্যটাকে মৃত আরও ১ পর্যটক

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা : নিম্নচাপ ঘনীভূত দিঘার সমুদ্রে। উত্তাল আর বিক্ষুব্ধ হচ্ছে সমুদ্র। ফলে সতর্ক করা হয়েছে পর্যটকদের কিন্তু বেপরোয়া মনোভাব কাটেনি অনেকেরই আর বারংবার সেই অসাবধানতার মাশুল দিতে হচ্ছে পর্যটকদের। রবিবার ছুটির দিনও সেই অসাবধানতার মাশুল প্রাণ দিয়ে চোকাতে হল এক পর্যটককে। মাত্র দু’দিনের ছুটি কাটাতে কলকাতা থেকে শনিবারই দিঘায় এসে পৌঁছেছিল ৫ বন্ধুর একটি পর্যটক দল। দুর্ভাগ্য তাঁদের ফিরতে হবে এক বন্ধুর লাশ নিয়ে।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে রবিবার দুপুরে এই দুর্ভাগ্যজনক ঘটনাটি ঘটেছে ওল্ড দিঘার সি-হক ঘোলা ঘাটে। এমনিতেই দুর্যোগ তার ওপর জোয়ার ছিল ওই সময়। দুপুর সাড়ে বারোটা নাগাদ সমুদ্রের পাড়ে গিয়েছিলেন ওই ৫ জন। জোয়ারের সময় তখন উত্তাল ছিল সমুদ্র। সেই অবস্থার কথা জানিয়ে পর্যটকদের সাবধান করতে মাইকিং করা হচ্ছিল দিঘা মোহনা কোস্টাল থানার পক্ষ থেকে। কিন্তু তারই মধ্যে হঠাৎই সমুদ্রে নেমে পড়েন কলকাতার টালিগঞ্জের চারু মার্কেটের বাসিন্দা পেশায় ব্যবসায়ী
কল্যাণ দাস। ঢেউয়ের দাপটে পাড়ে থাকা পাথর থেকে পা সরে গেলে ভারসাম্য হারান তিনি। মুহূর্তে ভেসে যান গভীরতর অংশে। জলের মধ্যেই বেশ কয়েকবার পাক খেতে দেখাও যায় তাঁকে। বন্ধুদের চিৎকারে নুলিয়ারা ঝাঁপিয়ে পড়ে তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

উদ্ধারকারী নুলিয়ারা বলেন, ” এই উত্তাল সমুদ্রে না নামার জন্য পুলিশের সাথে আমরাও মাইকিং করছিলাম। শনিবার থেকেই এই প্রচার চালানো হচ্ছে। প্রচার করতে করতে কিছুটা এগিয়ে গেছিলাম আমরা। ওই কয়েকজন বসেই ছিলেন। তাঁদের হাবভাব দেখে মনে হয়েছিল উত্তাল সমুদ্র, উঁচু ঢেউ আছড়ে পড়ার মজা নিচ্ছিলেন তাঁরা। ওঁদের কেউ যে সমুদ্রে নেমে যাবেন ভাবতেই পারিনি। তেমন লক্ষণ দেখলে আমরা পাড় থেকেই হটিয়ে দিতাম। কিছুটা এগিয়ে যাওয়ার পরই চিৎকার শুনে পেছন ফিরে ঘটনাটা দেখতে পেয়েই সমুদ্রে ঝাঁপিয়ে পড়ি। তুলেও আনি ওই ব্যক্তিকে। কিন্তু ততক্ষণে সব শেষ।”

মৃতের এক বন্ধু পর্যটক জানিয়েছেন, ‘ আমরা এমনিই সমুদ্র পাড়ের একটা জায়গায় বসে সমুদ্রের রুদ্ররূপ দেখছিলাম। হয়ত সবাই তন্ময় হয়ে গেছিলাম ফলে কল্যাণ যে কখন আমাদের নজর এড়িয়ে সমুদ্রে নেমে যায় আমরা জানতে পারিনি।’ প্রশ্ন উঠেছে মদ্যপান করেছিলেন কী ওই পর্যটক? তারই প্রভাব থেকে নিজে নিজেই সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন সমুদ্রে নামার, বীরত্ব দেখানোর? ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না পাওয়া অবধি সেটা পরিস্কার নয়। অন্যদিকে শনিবার রাতে গভীর রাতে নিউ দিঘার হোটেলে হৃদরোগে আক্রান্ত হন রামকৃষ্ণ কীর্তনিয়া (৬৬)। নদিয়ার কল্যাণীর বাসিন্দা ওই ব্যক্তিকে রাত ১ টা নাগাদ দিঘা হাসপাতালে নিয়ে আসেন পরিবারের লোকজন। সেখানে তাঁকে মৃত বলে জানান চিকিৎসক। দুটি মৃত্যুর তদন্তের জন্য দুটি পৃথক অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করেছে পুলিশ। তদন্ত শুরু হয়েছে।

- Advertisement -
Latest news
Related news