Tuesday, April 16, 2024

Road Block Kharagpur Midnapore: বুধবার আদিবাসী জনজাতি সংগঠনের কর্মসূচি! খড়গপু্র মেদিনীপুরের সাথে অচল হতে পারে ঘাটাল ডেবরা সবং বেলদা দাঁতন, দেখে নিন কোথায় কোথায় অবরোধ

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: বুধবার, ৪ জানুয়ারি কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকারের বিভিন্ন নীতির বিরুদ্ধে রাজ্য জুড়ে সড়ক পথ অবরোধের ডাক দিয়েছে আদিবাসী জনজাতি সংগঠন ভারত জাকাৎ মাঝি পারগানা মহল। তাঁদের ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী রাজ্যের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক পথ অবরোধের আওতায় আসতে চলেছে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার বেশ কয়েকটি থানা এলাকার রাজ্য এবং জাতীয় সড়ক।এর ফলে জেলার বিভিন্ন জায়গা থেকে জেলা সদর মেদিনীপুর শহর ও জেলার গুরুত্বপূর্ণ রেল জংশন শহর খড়গপু্রে আসা কিংবা বেরুনোর পথে বাধা সৃষ্টি হওয়ার প্রবল সম্ভবনা রয়েছে। পাশাপাশি অবরোধের আওতায় চলে আসতে পারে মহকুমা শহর ঘাটাল ছাড়াও গুরুত্বপূর্ণ থানা এলাকার জায়গা গুলি। স্বাভাবিক ভাবেই বুধবার বাড়ি থেকে বেরুনোর আগে সম্ভাব্য অবরোধ স্থলগুলি জেনে নেওয়া দরকার যাতে প্রয়োজনে নিজস্ব কর্মসূচি বাতিল অথবা বিকল্প সড়কের ব্যবস্থা করে বাড়ি থেকে বেরুতে পারেন।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

ওই সংগঠনের তরফে জানানো হয়েছে নিম্ন লিখিত জায়গা গুলোতে পথ অবরোধ কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে:
মেদিনীপুর সদর মহকুমার ১. গড়বেতা, ২. চন্দ্রকোনা রোড, ৩. কেশপুর
ঘাটাল মহকুমার ১. ক্ষীরপাই হালদার দিঘী মোড়, ২ ঘাটাল ব্রীজ, ৩. দাসপুর
খড়গপুর মহকুমার ১.ডেবরা, ২. সবং এর তেমাথানি, ৩ বেলদা, ৪. দাঁতন

জন সাধারণের উদ্দেশ্যে জারি করা একটি আবেদনপত্রে ভারত জাকাৎ মাঝি পারগানা মহলের পক্ষে জানানো হয়েছে, ” ২০০৮ সাল থেকে মিডিয়াম হিসাবে সাঁওতালি ভাষার মাধ্যমে শিক্ষা অর্থাৎ পঠন পাঠন শুরু হয়। আজ চৌদ্দ বছর অতিক্রান্ত তবুও মিডিয়াম হিসাবে যথাযত পরিকাঠামো সহ সাঁওতালি মাধ্যম শুরু করা সম্ভব হয়ে ওঠেনি।”“নকল তপশীল উপজাতি তথা ‘ফেক এস টি’ আর একটি মারাত্মক সমস্যা। সারা পশ্চিম বাংলায় ফেক এস টি এর এখন রমরমা বাজার। ডাক্তারী, ইঞ্জিনিয়ারিং, কলেজ, ইউনিভার্সিটি প্রত্যেকঠি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এই ‘নকল তপশীল উপজাতি’র রমরমা প্রকৃত তপশীল উপজাতি কে বঞ্চনার চরম সীমায় পৌছে দিয়েছে। শিক্ষায়, জীবন জীবিকায় প্রকৃত তপশীল উপজাতির লোকেরা বঞ্চিত। এই ফেক এস টি রা ধরা পড়ার পরও যাতে শাস্তি না পায় তার জন্য সরকার বাহাদুর এস টি আইডেন্টিফিকেশন এমেন্ডমেন্ড বিল বিধানসভায় পাশ করিয়েছে। আমরা এর তীব্র বিরোধিতা করছি।”

“জল জঙ্গল জমি থেকে আদিবাসীদের বঞ্চনার ইতিহাস তো স্বাধীনতা লাভের পর থেকেই চলছে। এখন চলছে। তার চরম নিদর্শন বর্তমান অযোধ্যা পাহাড় এবং দেঁউচা পাঁচামি। অযোধ্যা পাহাড়ের সবুজ ধ্বংস করে, কয়েক হাজার আদিবাসীকে বিতাড়িত করে ঠুড়গা প্রকল্প, বাঁদুনালা ড্যাম প্রকল্প নির্মাণ করা হচ্ছে। পাহাড় ধ্বংস করে উন্নয়নের যে মডেল রচনা করা হচ্ছে তাতে বহুজাতিক কোম্পানির লাভ হলেও প্রান্তিক আদিবাসীদের কোনো উন্নয়ন হবে না, লাভও নেই। তাই আমরা তার তীব্র বিরোধিতা করছি।”
দেঁউচা পাঁচামি কোল ব্লক এরিয়া থেকে যে সমস্ত আদিবাসী বিচ্যুত হবে, বিতাড়িত হবে, প্রকৃতির ভারসাম্য নষ্ট হবে তাতে – সরকারের দেওয়া ওই সামান্য প্যাকেজে তাদের কিছু উন্নতি হবেনা। মাঝখান থেকে তারা অন্যান্য কয়লাখনি, ড্যাম এরিয়া, কারখানা এরিয়ার মতো অঞ্চল থেকে চিরদিনের মতো উদ্বাস্তু হয়ে ইতিহাস থেকেই হারিয়ে যাবে। ভারত জাকাত মাঝি পারগানা মহল এই ঘটনা কে বরদাস্ত করতে পারবে না। পশ্চিমবঙ্গের মা মাটি মানুষের সরকার যে আদিবাসীদের গুরুত্ব দিতে নারাজ তা সরকারের দেওয়া প্রতিশ্রুতি না পালনের মধ্যে দিয়ে জলের মতো পরিষ্কার হয়ে যাচ্ছে। সরকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল যে শীতকালীন অধিবেশনে আদিবাসীদের ধর্ম স্বীকৃতি দিয়ে বিল পাশ করে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে পাঠাবে। সরকার তার প্রতিশ্রুতি পালন করে নি।”

ভারত জাকাৎ যে ভারত জাকাৎ মাঝি পারগানা মহলের অভিযোগ, এই সমস্ত ঘটনা আদিবাসীদের প্রতি সরকারের বিমাতৃসুলভ মনোভাবেরই বহিঃপ্রকাশ। এই জলন্ত সমস্যা নিয়ে সমগ্র আদিবাসী সমাজ চরম বিক্ষুব্ধ। তারই প্রতিকার চেয়ে পারগানা মহল পশ্চিমবঙ্গ পনত কমিটি এবং সমস্ত ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনগুলোর সম্মিলিত ডাকে রাজ্য জুড়ে পথ অবরোধ‌‌‌ কর্মসূচির ডাক দেওয়া হয়েছে। কমিটি সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, এই পর্যায়ে রেল পথ অবরোধ করা হবেনা ঠিকই কিন্তু এর পরও যদি সরকারের টনক না নড়ে তবে এপ্রিল মাস থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য টানা রেল পথ, সড়ক পথ অবরোধ শুরু হবে। তার জন্য ভারত জাকাৎ মাঝি পারগানা মহল দায়ী থাকবে না। ফাইল ছবি

- Advertisement -
Latest news
Related news