Saturday, April 20, 2024

Haldia: গৃহস্থের খেয়ালি খিলে ঘরের ভেতরেই আটকে গেল হলদিয়ার ভোরের চোর

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: সূর্য ডোবা থেকে সূর্য ওঠার আগে অবধি হলদিয়ার চোরেদের চারটে সিফট। তারমধ্যে ভোরের সিফটাই চাপের। ঘুম থেকে তিনটেয় বেরিয়ে পড়তে হয়। সারা রাত ভ্যাপসা গরমে ভালো করে ঘুম হয়না গৃহস্থের। ভোর রাতের দিকে পরিবেশ একটু ঠান্ডা হলে গাঢ় হয় ঘুমের আমেজ। তক্কে তক্কে থাকে চোর, স্যাঁত করে ঘরের ভেতর সিঁধিয়ে যায় চোর। হিসাব নিকেশ করে ঠিক তেমনই করে হলদিয়ার এক গ্রামে গৃহস্থের বাড়িতে ঢুকেও পড়েছিল ২৮ বছরের চোর কিন্তু বাদ সাধল গৃহস্থের খেয়াল। ঘরে ধান সেদ্ধ করার ধোঁয়া ঢুকতে থাকায় বাইরে থেকে ঘরের শেকল আটকে দেওয়ায় ফাঁদে পড়ে গেল চোর বাবাজী। তারপর উত্তম মধ্যম খেয়ে সোজা পুলিশের হেফাজতে যেতে হল।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

মজার এই ঘটনা ঘটেছে হলদিয়ার ভবানীপুর থানার ব্রজলাল চক থেকে ৪ কিলোমিটার দুরে বড়বাড়ি গ্রামে। গ্রামের গৃহস্থ নারায়ন তুঙ আর তাঁর স্ত্রী মিলে ঘরের উঠোনে ধান সেদ্ধ করছিলেন। নারায়ন বাবুর ২ কামরার ঘর। একটি ঘরে স্বামী-স্ত্রী থাকেন অন্য ঘরে তাঁদের কিশোর ছেলে। ছেলে তখন অন্য ঘরে ঘুমিয়ে কাদা। নারায়নবাবু ও তাঁর স্ত্রী ভোর সাড়ে ৩টা নাগাদ ধান সেদ্ধ করার জন্য বেরুনোর সময় ঘরের দরজা খুলেই রেখেছিলেন। তাঁরা যখন ধান সেদ্ধ করাতে ব্যস্ত তখনই ঘরে ঢুকে পড়ে চোর। কিছুক্ষণ পরে নারায়নবাবুর খেয়াল করেন যে দখিনা বাতাসের জেরে ধান সেদ্ধ করার জন্য ব্যবহৃত জ্বালানির ধোঁয়া ঢুকছে ঘরের ভেতরে। এরপরই নারায়নবাবু দরজা বন্ধ করে বাইরে থেকে শেকল তুলে দেন।

নারায়নবাবু বলেন, বেশ কিছুক্ষণ পরে নারায়নবাবু শুনতে পান ঘরের ভেতরে কিসের শব্দ হচ্ছে। কেউ যেন ভেতর থেকে বেরুনোর জন্য দরজা খোলার চেষ্টা করছে। আমি প্রথমে ভাবি ছেলে বোধহয় কোনও কারণে এই ঘরে ঢুকে আটকে পড়েছে। আমি তখন ছেলেকে চিৎকার করে বলি সে ওই ঘরে ঢুকেছে কিনা। ছেলে জবাব দেয় সে এখনও ঘুমাচ্ছে। এরপরই বুঝতে পারি ঘরে অন্য কেউ ঢুকেছে। আমি চিৎকার করে প্রতিবেশীদের ডাকাডাকি করি। তাদের উপস্থিতিতে দরজা খুলে দেখা যায় চোর বাবাজী ঘরের ভেতর ঢুকে বসে রয়েছে।

গ্রামের লোকেরা চোরকে ধরে উত্তম মাধ্যম দেওয়ার পর পুলিশের হাতে তুলে দেয়। জানা গেছে চোরের নাম শম্ভু দাস। বাড়ি ১০কিলোমিটার দূরে চিরঞ্জীবপুরে। কয়েকদিন আগেই জেল থেকে ছাড়া পেয়েছে সে। নারায়নবাবুর বাড়ি থেকে কিছু সরাতে না পারলেও তার কাছ থেকে তিনটিমোবাইল হ্যান্ডসেট পাওয়া গেছে যা দেখে মনে হচ্ছে আগে কোথাও হাত সাফাই করার নারায়নবাবুর বাড়িকে দ্বিতীয় লক্ষ্য হিসাবে বেছে নিয়েছিল ধৃত শম্ভু।

- Advertisement -
Latest news
Related news