Monday, April 15, 2024

Debra Crime: মোড়লদের নির্দেশে মাথা ন্যাড়া করে মুখে কালি মাখানোর পর থেকেই নিখোঁজ গৃহবধূ! মধ্যযুগীয় বর্বরতা ডেবরায়

- Advertisement -spot_imgspot_img

শশাঙ্ক প্রধান: স্বামী অসুস্থ তাই বাইরে কাজ করতে গেছিলেন এমনই দাবি তরুণী গৃহবধূর কিন্তু পাড়ার লোকের দাবি অসুস্থ স্বামীকে ছেড়ে অন্য পুরুষের সাথে সম্পর্ক স্থাপন করেছেন তিনি। অভিযোগ অসুস্থ স্বামী, বৃদ্ধা শাশুড়ি আর নাবালক দুই সন্তানের দায় এড়িয়ে পর পুরুষের সাথে ঘর বেঁধেছেন ওই গৃহবধূ। তাই তাঁকে ধরে নিয়ে এসে তাঁর মাথা ন্যাড়া করে কালি মাখিয়ে দেওয়া হয় মুখে। গত দু’দিন আগে এই ঘটনার পর থেকেই নিখোঁজ ওই গৃহবধূ। পশ্চিম মেদিনীপুরের ডেবরা থানা এলাকার ঘটনায় ওই গৃহবধূর মায়ের অভিযোগের পরই নড়ে চড়ে বসেছে পুলিশ। ঘটনায় দুই মহিলা সহ ৩জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে এই মধ্যযুগীয় শাস্তি বিধানের ঘটনাটি ঘটেছে ডেবরা থানার মলিহাটি গ্রামপঞ্চায়েতের অন্তর্গত চক অনন্ত গ্রামে। গত মঙ্গলবার ওই গ্রামের সাগর সিং নামক এক যক্ষ্মা রোগগ্রস্ত যুবকের তরুণী স্ত্রী এবং দুই সন্তানের জননীর সাথে ঘটেছে এই বর্বরতা। বৃহস্পতিবার ওই তরুণী গৃহবধূর মা আভা সিং ডেবরা থানায় অভিযোগ দায়ের করতে গিয়ে বলেছেন, অসুস্থ স্বামী, বৃদ্ধা শাশুড়ি ও দুই নাবালক সন্তানের গ্রাসাচ্ছাদনের জন্যই বাইরে কর্মরত ছিলেন তাঁর মেয়ে। সেখান থেকে তাকে তুলে নিয়ে এসে এই বর্বরতা ঘটানো হয়েছে আর তারপর থেকেই লজ্জায়, অপমানে নিজেকে কোথাও সরিয়ে নিয়েছেন অথবা কী হয়েছে তা তিনি জানেননা। মোট কথা ২ দিন ধরে খোঁজই মিলছেনা তাঁর।

চক অনন্ত গ্রামের অভিযুক্ত কয়েকজন মহিলা পাল্টা অভিযোগ, “সাগর সিংয়ের যক্ষ্মা ধরা পড়েছে ৬ মাস আগেই। রোগগ্রস্ত স্বামী ও বৃদ্ধা শাশুড়ি ও ২ নাবালক সন্তানকে ছেড়ে পালিয়ে গিয়ে অন্য পুরুষের সাথে সম্পর্ক স্থাপন করেছিল ওই গৃহবধূ। আমাদের সমাজে আমরা কর্মে অক্ষম পরিবারকে পরিশ্রম করেই খাওয়াই। সুতরাং ওই গৃহবধূ বাইরে কাজ করতে গেছিল বলেই ওঁকে আমরা এমনটা করেছি এই অভিযোগ ঠিক নয়। হয়ত আমরা ভুল শাস্তি দিয়েছি কিন্তু আমাদের সমাজে এই অন্যায়ের জন্য শাস্তি পেতে হয়। আমরা আমাদের মেয়েকেও বলি অক্ষম স্বামী, শ্বশুর শাশুড়ির দায়িত্ব ছেড়ে পালাবেনা।”

ওই এলাকার প্রাক্তন পঞ্চায়েত তথা বর্তমান তৃনমূল অঞ্চল সভাপতি অসিত বেরা বলেন, “৬ মাস ধরেই সাগর সিং অসুস্থ। সাগরের মা অত্যন্ত বৃদ্ধা। ৪ বছর ও ২ বছরের নাবালক সন্তান রয়েছে। সাগর বর্তমানে শয্যাশায়ী। স্বাস্থ্যদপ্তরের অধীন ওর চিকিৎসা চলছে। অঙ্গনওয়াড়ি থেকে এক বেলা খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। পঞ্চায়েতের তরফে অপর বেলার চাল দেওয়া হয়। এই অবস্থায় এই ঘটনাটি ঘটে গেছে। শুনেছি গত কয়েকমাস ধরেই ওর স্ত্রী বাড়িতে ছিলনা। ২ দিন আগে চক অনন্ত গ্রামের এক যুবক বিশ্বনাথ সিং ওকে গোলগ্রামের কাছে ঘোরাঘুরি করতে থেকে সাইকেলে করে গ্রামে নিয়ে আসে। শুনেছি তারপরই ঘটনাটি ঘটেছে। মহিলা যাই করুননা কেন শাস্তি বিধানের এই প্রক্রিয়া মানতে পারা যায়না।” পুলিশ বিশ্বনাথ সিং ও দুই মহিলাকে গ্রেফতার করেছে।

- Advertisement -
Latest news
Related news