Sunday, April 14, 2024

Kharagpur Killing: খড়গপুরে পারিবারিক বিরোধ! মামাতো ভাইয়ের হাতে খুন

PC's son was killed while trying to settle a family dispute at the hands of his cousin. The accused was arrested in the incident though he himself was reportedly injured in the fight. The incident took place on Saturday at Panishiuli village under Kharagpur local police station in West Midnapore district. Note that there are several Panishiuli villages under Kharagpur local police station. The village concerned is adjacent to Mawa, Chakraj village. Police sources said the deceased was identified as Ganesh Murmu. Age 36 years. On Saturday morning, Ganesh's cousin Gopal Saran got into an argument with his aunt. Locals said Gopal was probably addicted. The quarrel escalates to the point where Gopal tries to kill his aunt. Seeing the matter, Ganesha came running. He tries to stop Gopal but seeing that Gopal is not stopping, Ganesha hits him with a tree branch. Gopal gets angry at this. He also started hitting Ganesha with the branch of a fallen tree. The two started fighting. At this time, Ganesha fell due to Gopal's beating. He died on the way to the hospital with the unconscious Ganesha.

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: পারিবারিক বিরোধ মেটাতে গিয়ে খুন হল পিসির ছেলে, খুন মামাতো ভাইয়ের হাতে। ঘটনায় গ্রেফতার হয়েছেন অভিযুক্ত যদিও তিনি নিজেও মারামারিতে আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। শনিবার ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার খড়গপুর লোকাল থানার অন্তর্গত পানিশিউলি গ্রামে। উল্লেখ্য খড়গপুর লোকাল থানার অন্তর্গত একাধিক পানিশিউলি গ্রাম রয়েছে। সংশ্লিষ্ট গ্রামটি মাওয়া, চকরাজ গ্রাম সংলগ্ন।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে মৃত ব্যক্তির নাম গণেশ মুর্মু। বয়স ৩৮ বছর। শনিবার সকালে গণেশের মামাতো ভাই গোপাল সরেন তাঁর কাকিমার সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়ে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন সম্ভবতঃ গোপাল নেশাসক্ত ছিলেন। বচসা এমন জায়গায় পৌঁছায় যে গোপাল তাঁর কাকিমাকে মারতে উদ্যত হয়। বিষয়টি দেখে ছুটে আসে গণেশ। সে গোপালকে থামানোর চেষ্টা করে কিন্তু গোপাল থামছেনা দেখে গণেশ তাকে একটি গাছের ডাল দিয়ে মারে। এতে চটে যায় গোপাল। সেও একটি পড়ে থাকা গাছের ডাল দিয়ে গণেশকে মারতে থাকে। শুরু হয়ে যায় দুজনের লাঠালাঠি। এই সময় গোপালের মারের আঘাতে লুটিয়ে পড়ে গণেশ।

সংজ্ঞাহীন গণেশকে নিয়ে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয় তাঁর। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান কানের অংশে আঘাত লাগায় অভ্যন্তরীণ রক্তক্ষরনে মৃত্যু হয়েছে গণেশের। যদিও ময়নাতদন্তের রিপোর্টের পরই মৃত্যুর আসল কারন জানা যাবে বলে পুলিশ মনে করছে। গোপালকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে কিন্তু তাঁরও চিকিৎসা চলেছে। তাঁর শরীরেও আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে জানা গেছে। স্থানীয়দের অনুমান দুই তুতো ভাইই মদের নেশায় চুর হয়েছিলেন। পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।

- Advertisement -
Latest news
Related news