Sunday, April 14, 2024

Midnapore: পশ্চিম মেদিনীপুরে কাকভোরে আলুর ক্ষেতে উদ্ধার ব্যক্তির রক্তাক্ত মৃতদেহ! অভিসারে গিয়েই খুন কিনা খতিয়ে দেখছে পুলিশ

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: মঙ্গলবার কাকভোরে এক ব্যক্তির রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধারকে ঘিরে চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার চন্দ্রকোনা থানা এলাকায়। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে মৃত ব্যক্তির নাম অশোক দিগার। ৪৫ বছর বয়সী অশোকের দেহটি উদ্ধার হয়েছে তাঁর গ্রাম চন্দ্রকোনারই মদনচক এলাকার একটি আলুর ক্ষেত থেকে। স্থানীয়দের প্রাথমিক অনুমান খুন করা হয়েছে ওই ব্যক্তিকে। মাথায় ধারালো কোন বস্তু দিয়ে আঘাত করার ফলে এই মৃত্যু বলে অনুমান করছে স্থানীয় বাসিন্দারা।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

মদনচক গ্রামের বাসিন্দারা জানিয়েছেন, সাতসকালেই ওই জমির মালিক আলু ক্ষেতের পরিচর্যা করতে গিয়ে উপুড় হয়ে পড়ে থাকা মৃতদেহটি দেখতে পান। সাথে সাথে তিনি পড়শীদের ডাকাডাকি করেন। সবাই মিলে মৃতদেহটি সনাক্ত করেন অশোকের বলে। স্থানীয় বাসিন্দারা আরও জানিয়েছেন যে মৃতের মাথায় কোনো ভারী বস্তু দিয়ে আঘাত করা হয়েছে পাশাপাশি শরীরের একাধিক জায়গায় ক্ষত চিহ্ন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ইতিমধ্যে পৌঁছেছে চন্দ্রকোনা থানার পুলিশ।

মৃত ব্যক্তির ছেলে গণেশ দিগারে দাবি, বাবা রাতে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিল কখন জানিনা। তবে গ্রামেরই এক মহিলার সাথে বাবার দীর্ঘদিনের বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক ছিল, এই নিয়ে মাঝেমধ্যে ঝামেলা হতো ওই পরিবারের সাথে। এর আগেও ওরা বাবাকে মেরে ফেলার চেষ্টা করেছিল তারা। কয়েকবার সেই চেষ্টা হয়েছিল। আমার অনুমান ওরাই বাবাকে মেরে ফেলল। পুলিশ জানিয়েছে, মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের পরই মৃত্যুর প্রকৃত কারন জানা যাবে। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে এরকম একটি দাবি ওঠায় পুলিশ তা খতিয়ে দেখতে চলেছে। পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ঘটনাটি খুনের মামলা বলেই মনে করা হচ্ছে। আপাততঃ একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করা হচ্ছে। এরপর ময়নাতদন্তের রিপোর্ট ও কোনও অভিযোগ এলে তার ভিত্তিতে আরও ধারা যুক্ত করা হবে।

- Advertisement -
Latest news
Related news