Sunday, April 14, 2024

Kharagpur Politics: খড়গপু্রের বিধায়ক ওড়ালেন অজিত মাইতির দাবি! তৃনমূল কংগ্রেস মানে চোর,চোর, চোর বললেন হিরন

He had a meeting with Abhishek Banerjee in Camac Street office! One such photo of Kharagpur MLA actor Hiran went viral, sparking speculation that actor-MLA Hiran Chattopadhyay is returning home to the Trinamool. West Midnipur Trinamool leader and Pingla MLA Ajit Maiti also claimed that the picture is genuine and that Hiron is trying to join the Trinamool. But by blowing up all the speculations, Hiran Chatterjee said on Saturday, Trinamool Congress means thief thief thief! There is no question of joining that band of thieves.

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ ক্যামাক স্ট্রিটের অফিসে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে নাকি বৈঠক হয়েছে তাঁর! খড়গপু্র বিধায়ক অভিনেতা হিরনের ভাইরাল হওয়া এরকমই একটি ছবি ঘিরে তুমুল জল্পনা শুরু হয় যে তৃণমূলে ঘরওয়াপসি করছেন অভিনেতা- বিধায়ক হিরণ চট্টোপাধ্যায়। পশ্চিম মেদিনীপুরের তৃনমূল নেতা তথা পিংলার বিধায়ক অজিত মাইতিও দাবি করেন ওই ছবিটি আসল এবং হিরন নাকি তৃনমূলে যোগ দেওয়ার জন্য ছটপট করছে। কিন্তু সমস্ত জল্পনা উড়িয়ে দিয়ে শনিবার হিরন চট্টোপাধ্যায় জানিয়ে দিলেন, তৃনমূল কংগ্রেস মানেই চোর চোর চোর! সেই চোরের দলে যোগ দেওয়ার প্রশ্ন নেই।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

শুক্রবার বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে একটি বৈঠক করেন হিরন চট্টোপাধ্যায়। তার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বিধানসভার ২ নং গেটের বাইরে সাংবাদিক বৈঠক ডেকে সমস্ত জল্পনায় জল ঢেলে দিয়ে খড়গপুরের বিজেপি বিধায়ক বলেন, ” ডিজিটা লাইজেসন আর আর্টিফিসয়াল ইন্টিলিজেন্স প্রযুক্তির যুগে সবই সম্ভব। আজ নকল ছবি ছাড়ছে কাল ভিডিও ছাড়তে পারে। কিন্তু ঘটনা হল ২০২১ সালের পর থেকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে আমার কোনও যোগাযোগ নেই।” হিরনের দাবি, তাঁর ভাবমূর্তি কালিমালিপ্ত করার জন্যই প্রযুক্তির সহায়তায় এমন ছবি তৈরি করা হয়েছে। এখানেই শেষ নয়। তিনি আরও বলেন, “ তৃনমূল চোরেদের দল! প্রযুক্তি ব্যবহার করে হাতে ঝান্ডা ধরিয়ে দিলেও পশ্চিমবঙ্গের মানুষ বিশ্বাস করবে না হিরণ তৃণমূলে ফিরছে।”

হিরন বলেন, ” চোরেদের কাছে মাথা নত না করলে, অত্যাচারের সঙ্গে আপোষ না করলে, ক্ষমতার কাছে শিরদাঁড়া না নোয়ালে,অন্যায়, অপশাসনের কাছে মাথা নত না করলে এরকম অনেক রকম চক্রান্ত হয়। টার্গেট করা হয়। আমি এগুলো কে পাত্তা দিই না।” এদিকে হিরনের এই ঘোষণায় ফের জোরদার হল খড়গপু্র পুরসভার চেয়ারম্যান সংক্রান্ত জল্পনা। প্রদীপ সরকার পদত্যাগ করার পর এই পদে হিরন কে আনার জন্য চেষ্টা হচ্ছে এমন ভাবনা ভাবছিলেন তৃনমূল কংগ্রেসের একটি অংশ। কিন্তু আপাতত সেই জল্পনার ইতি টেনে চেয়ারম্যান পদের লড়াইয়ে তৃনমূল কংগ্রেসের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব শুরু হতে পারে এমন আশংকাই প্রবল হচ্ছে।

- Advertisement -
Latest news
Related news