Tuesday, April 16, 2024

Primary: প্রাথমিকে দুর্নীতি ঘিরে চাঞ্চল্য নন্দীগ্রামে ! শিক্ষা কর্মাধ্যক্ষেরই শিক্ষিকা পদ ছিনিয়ে নিলেন আদালত

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: তিনি নিজেই শিক্ষা কর্মাধ্যক্ষ, তৃনমূল কংগ্রেস নেত্রী কিন্তু দুর্নীতি করে চাকরি পেয়েছেন প্রমাণিত হওয়ার পর চাকরি গেল তাঁরও। পূর্ব মেদিনীপুর জেলার নন্দীগ্রামের ঘটনায় জোর চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। উল্লেখ্য ২০১৭ সালে বেনিয়ম করে চাকরি হয়েছে এমন ২৬৯ জনের শিক্ষক শিক্ষিকার পদ কেড়ে নিয়েছেন কলকাতা হাইকোর্ট। শুধু কেড়ে নেওয়াই নয়, যতদিন কাজ করেছেন ততদিনের নেওয়া বেতন ফেরত দিতে বলেছেন আদালত। ক্রমশঃ সেই ২৬৯ তালিকা খুঁড়ে বেরিয়ে আসছে বিভিন্ন তৃনমূল নেতার ছেলে মেয়ে, আত্মীয় স্বজনদের নাম। এবার বেরিয়ে এল খোদ তৃনমূল নেত্রীর নাম!

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে
তালিকায় ২০নম্বর

পূর্ব মেদিনীপুর জেলা প্রাথমিক পর্ষদের পক্ষ থেকে আগেই স্বীকার করে নেওয়া হয়েছিল যে বেআইনি নিয়োগের তালিকায় থাকা বরখাস্ত হওয়া ওই ২৬৯ জন শিক্ষক-শিক্ষিকার মধ্যে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার ৩০ জন রয়েছেন। সম্প্রতি সেই তালিকা প্রকাশও হয়েছে বিভিন্ন সমাজমাধ্যমে। সেই ৩০ জনের তালিকায় রয়েছেন সঞ্চিতা প্রধান। জানা গেছে নন্দীগ্রাম-২ পঞ্চায়েত সমিতির শিক্ষা কর্মাধ্যক্ষ পদে রয়েছেন তিনি। স্থানীয় তৃনমূল কংগ্রেসের মহিলা নেত্রীও তিনি। ২০১৭ সালে সঞ্চিতা নিয়োগ পত্র পান এবং নন্দীগ্রামের উত্তর বয়াল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যোগ দেন তিনি। স্থানীয়দের অভিযোগ দুর্নীতি করে তিনি যে শুধু চাকরি পেয়েছেন এমনটাই নয়, বাড়ির কাছাকাছি পোস্টিংও হয়েছিল তাঁর। চাকরির পাশাপাশি শিক্ষা কর্মাধ্যক্ষ পদেও দিব্যি বহাল ছিলেন তিনি।

যদিও বিষয়টি তাঁর জানা নেই বলে দাবি করেছেন
নন্দীগ্রাম ২ পঞ্চায়েত সমিতির শিক্ষা কর্মাধ্যক্ষ সঞ্চিতা প্রধান। তাঁর মতে এমন কোনোও নির্দেশ তিনি পাননি। তাছাড়া বিষয়টি বিচারাধীন। তবে তাঁর দাবি যে তিনি নিয়ম মতই পরীক্ষায় পাশ করে ওই চাকরি পেয়েছেন। এদিকে এদিনই নন্দীগ্রামের ভেকুটিয়ায় একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসে নন্দীগ্রামের বিধায়ক তথা বিরোধী দলনেতা প্রসঙ্গে শুভেন্দু অধিকারী বলেছেন সঞ্চিতার না আছে শিক্ষক প্রশিক্ষণ না উনি টেট উর্ত্তীণ। এররকম আরও অনেক বের হবে। তাঁর কথায় “ও তো (সঞ্চিতা) মহাদেবকে (ব্লক তৃণমূলের সভাপতি মহাদেব বাগ)দিয়ে পার্থকে (পার্থ চট্টোপাধ্যায়) টাকা দিয়েছে। ১০-১২ লাখ তো হবেই। টেট পাস করেনি, বেসিক নেই।’ যদিও মহাদেব বাগ বলেছেন, ” আমাদের বিরুদ্ধে কুৎসা করতেই এই সব বলা হচ্ছে।আমি ওই নিয়োগ হওয়া বা চাকরি যাওয়ার কিছুই জানিনা।” সবমিলিয়ে সরগরম নন্দীগ্রাম।

- Advertisement -
Latest news
Related news