Friday, April 19, 2024

Haldia: দুর্নীতির প্রতিবাদ করে দলীয় নেতার রোষের মুখে তৃনমূল ব্লক সভাপতি! পুলিশে অভিযোগ

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: খোদ শাসকদলের ব্লক সভাপতি খুনের হুমকি পাচ্ছেন আর সেই হুমকি পাচ্ছেন দলেরই সহকর্মী নেতাদের কাছে! অভিযোগ, দলেরই পরিচালিত পঞ্চায়েত সমিতিতে চলছে ব্যাপক লুট, দুর্নীতি।আর সেই লুট আর দুর্নীতির প্রতিবাদ করতে গিয়েই প্রাণনাশের হুমকি পাচ্ছেন ওই ব্লক সভাপতি। পূর্ব মেদিনীপুর জেলার হলদিয়া ব্লক সভাপতি অশোক মাইতি লিখিত ভাবে সরাসরি এমনই অভিযোগ করেছেন পুলিশ সুপার ও জেলা শাসকের কাছে। ওই অভিযোগ করতে গিয়ে মাইতি বলেছেন, তাঁদেরই দলের নেতাদের দ্বারা পঞ্চায়েত সমিতির দুর্নীতির হাল হকিকৎ জানতে চেয়ে আর.টি.আই করার পর থেকেই প্রতিনিয়ত এই হুমকির মধ্যে পড়তে হচ্ছে তাঁকে। লাগাতার এই হুমকির জন্য তিনি রীতিমতো আতঙ্কে রয়েছেন।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

তৃনমূলের ওই ব্লক সভাপতি মূল অভিযোগ এলাকার দাপুটে নেতা ও হলদিয়া উন্নয়ন পঞ্চায়েত সমিতির পুর্ত কর্মাধ্যক্ষ শিব শঙ্কর বেরার বিরুদ্ধে। তিনি আরও জানিয়েছেন শিবশঙ্করের পেছনে রয়েছেন খোদ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সুব্রত হাজরাও। অভিযোগ পত্রে মাইতি জানিয়েছেন, ২০২০ সাল থেকে হলদিয়া ব্লকের সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব নেওয়ার পরই পঞ্চায়েত সমিতিতে চলা দুর্নীতিতে রাশ টানতে চেয়েছিলেন তিনি। দলীয়স্তরে পঞ্চায়েত সমিতির কাজকর্মে মনিটরিং করার জন্য বারংবার সমিতির নির্বাচিত পদাধিকারীদের নিয়ে সভা করেছেন কিন্তু কোনও বারই ওই সভায় শিব শঙ্কর বেরা কিংবা সুব্রত হাজরা উপস্থিত থাকেননি। এরপরই তিনি বাধ্য হয়ে কয়েকটি প্রকল্পের বিস্তারিত জানতে চেয়ে আর.টি.ও করেন আর তারপরই গন্ডগোলের শুরু।

ব্লক সভাপতি বলেন, ” গত মে মাসে ওই অভিযোগ করার পর থেকেই অভিযোগ প্রত্যাহার করার জন্য দফায় দফায় প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। কখনও বাড়ি অবধি আমার পিছু পিছু ধাওয়া করছে মুখে গামছা বাঁধা লোকজন। তারা বলছে ওই আর.টি.ও প্রত্যাহার না করলে ২০১৩ ও ২০১৫ সালের মত অবস্থা করা হবে। উল্লেখ্য ২০১৩ সালে আমার বাড়ি ভাঙচুর ও লুটপাটের পাশাপাশি আমার বৃদ্ধ বাবাকে মেরে হাত ভেঙে দেওয়া হয় আর ২০১৫ সালে আমাকে অফিস থেকে তুলে নিয়ে সারা শরীরে ভোজালি দিয়ে কোপানো হয় এবং মৃত মনে করে ফেলে আসা হয়।” ব্লক সভাপতি জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারের কাছে আবেদন করেছেন তাঁর নিরাপত্তা নিশ্চিত করার পাশাপাশি যেন হলদিয়া পঞ্চায়েত সমিতি স্বচ্ছ ভাবে পরিচালিত হয় তা দেখার জন্য।

হলদিয়া পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সুব্রত হাজরা অবশ্য এই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, ” আমি এই ধরনের রাজনীতিতে আমি বিশ্বাস করিনা যে যেই দলই করুক না কেন রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করাটাই শ্রেয়। আমি কাউকেই কোনও হুমকি দেইনি। কেন আমার বিরুদ্ধে এই অপবাদ দেওয়া হচ্ছে বলে জানিনা।” হাজরা আরও বলেন,” অশোক মাইতি যখন প্রশাসনিক কর্তাদের কাছে অভিযোগ করেছেন তখন তাঁরা সেই অভিযোগ খতিয়ে দেখুন।”

- Advertisement -
Latest news
Related news