Tuesday, April 16, 2024

Kanthi: পাপ ছাড়লনা বাপকেও! তৃণমূল নেতার চালকের বাড়িতে বোমা বিস্ফোরণ! কেঁপে উঠল মেদিনীপুরের গ্রাম, ঝলসে গেলেন বাবা

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা : পাপ বাপকেও ছাড়েনা! কী মর্মান্তিক সত্য উচ্চারণ বাংলার প্রবাদে! বাড়িতে মজুত করা ছিল বোমা! জানতেননা বৃদ্ধ। সাংসারিক প্রয়োজনে একটি শাবল নিয়ে পরিত্যক্ত দেওয়ালের অংশ ভাঙতে যান বাড়ির বৃদ্ধ কর্তা। মুহূর্তে বিকট আওয়াজে বিস্ফোরণ। কয়েক হাত দুরে ছিটকে পড়েন বৃদ্ধ, ঝলসে যায় গোটা শরীর। ঘটনা বুধবার দুপুরে, পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কাঁথি থানার দেশপ্রাণ ব্লকের গোটসাউড়ি গ্রাম। ঘটনা চক্রে ওই বাড়িটি দেশপ্রাণ পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি তথা জেলা তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক তরুণ জানার গাড়ির চালক মহাদেব বারিকের। বিস্ফোরণে গুরুতর জখম হয়েছেন বাড়ি মালিক দিবাকর বারিক (৬০) মহাদেবের বাবা।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

পূর্ব মেদিনীপুরের সিপিএম জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য হিমাংশু দাস অভিযোগ করেছেন, “তৃনমূল নেতার গাড়ির চালক দিবাকর নিজেও সক্রিয় তৃনমূল ক্যাডার। নিজেরই একটি অব্যবহৃত বাড়িতে প্রচুর বোমা মজুদ করেছিলেন। কিন্তু সেটা লুকিয়ে রাখার কথা আড়াল করেছিলেন পরিবারের কাছেও। তারই পাপের মাশুল দিতে হল বৃদ্ধ বাবাকে। আমরা ওই বৃদ্ধের প্রতি সমব্যথী কিন্তু ধিক্কার জানাই ওই হিংসাশ্রয়ী পরিকল্পনা সাধনের জন্য বোমা মজুদের ঘটনাকে।” জানা গেছে মারাত্মক ভাবেই ঝলসে গেছে বৃদ্ধ দিবাকর দাসের শরীর। কাঁথি মহকুমা হাসপাতালে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন তিনি।

পুলিশেরও প্রাথমিক অনুমান, মজুত করা বোমা ফেটে এই ঘটনা ঘটেছে। এদিকে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। কাঁথির মহকুমা পুলিশ আধিকারিক সোমনাথ সাহা বলেছেন, ‘পরিত্যক্ত মাটির বাড়ি ভাঙার কাজ চলছিল। সে সময় ওই বাড়িতে মজুত থাকা বোমা ফেটে বিস্ফোরণ ঘটে। ওই বাড়ির মধ্যে কীভাবে বোমাগুলি এলো তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। নির্দিষ্ট ধারায় মামলা রুজু করে ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।’

এদিকে মহাদেব যে তৃনমূল নেতার গাড়ি চালান সেই তৃনমূল নেতা তথা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতির নাম এর আগেও খেজুরি থানার পশ্চিম ভাঙনমারির বিস্ফোরণ-কাণ্ডে নাম জড়িয়েছিল। সেই মামলার তদন্ত করছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা এনআইএ। এনআইএ সেই ঘটনায় জেরাও করেছে তাঁকে। তারই মধ্যে ফের তাঁর গাড়ির চালকের বাড়িতে বিস্ফোরণ ঘটনায় শোরগোল পড়ে গিয়েছে এলাকায়। যদিও তরুণ জানিয়েছেন, মহাদেব তাঁর গাড়ির অস্থায়ী চালক। তাঁর গাড়ির চালক অন্য ব্যক্তি। সেই ব্যক্তি ছুটিতে থাকায় গত দু’দিন মহাদেব তাঁর গাড়ি চালাচ্ছিলেন। তার সম্পর্কে বিস্তারিত কিছুই জানেন না তিনি। তাঁর ভাবমূর্তি নষ্ট করার চক্রান্ত হচ্ছে এই ঘটনায় তাঁকে জড়িয়ে। এদিকে বুধবার বিকেলেই ঘটনাস্থলে যায় কাঁথি থানার পুলিশ। দড়ি দিয়ে ঘিরে ফেলা হয় বিস্ফোরণস্থল। এলাকায় পুলিশও মোতায়েন করা হয়েছে।তবে এখনও পর্যন্ত এ ব্যাপারে কাউকে গ্রেপ্তার কিংবা আটক করতে পারেনি পুলিশ।

সিপিএমের দাবি পঞ্চায়েত ভোটের মুখে ফের গ্রামে গ্রামে সন্ত্রাস তৈরি করার লক্ষ্যেই বোমা মজুত করছে তৃনমূল কংগ্রেসের নেতা কর্মীরা। সিপিএমের নেতা হিমাংশু দাস বলেন, ‘ বগটুই বিস্ফোরণের মত গনহত্যার ঘটনার পর মুখ্যমন্ত্রী বোমা ও আগ্নেয়অস্ত্র উদ্ধারের ঘোষণা করেছিলেন। কিন্তু আদতে ওসব যে আই-ওয়াশ তা আবার প্রমাণিত হল। রাজ্য জুড়ে এরকমই বারুদের স্তূপ তৈরি করেছে তৃনমূল।”
কাঁথি সাংগঠনিক জেলা বিজেপির সভাপতি সুদাম পন্ডিত সাংবাদিকদের বলেন, ‘ রামপুরহাটের গণহত্যার পরে মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন ১০দিনের মধ্যে বেআইনি অস্ত্র উদ্ধার করবেন। কিন্তু তা যে হয়নি। তা সবাই দেখতে পেলেন। গোটা বাংলা জুড়েই দুষ্কৃতী রাজ চলছে এবং বাড়িতে বাড়িতে বোমা শিল্প তৈরি হয়েছে।”

- Advertisement -
Latest news
Related news