Saturday, April 20, 2024

Digha: দিঘায় হাহাকার ইলিশের! দুশ্চিন্তায় দিঘার মৎস্যজীবীরা, মধ্যবিত্ত বাঙালির পাত কী এবারও ইলিশ শূন্য

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: ‘মর্নিং শোজ দ্য ডে’ এই ইংরেজি প্রবাদটি যদি সব সময় সত্যি হয় তবে তা মারাত্মক দুশ্চিন্তার কারন হয়ে দাঁড়াতে চলেছে দিঘা তথা পূর্ব মেদিনীপুরের মৎসজীবীদের কাছে। কারন মরশুমের শুরুতেই ইলিশের আকাল নজরে পড়ছে মৎসজীবীদের। গত ১৬ই এপ্রিল থেকে ১৪ই জুন অবধি সমুদ্রে মৎস প্রজননের জন্য নিষেধাজ্ঞা থাকে বরাবর। ১৫ জুন সেই নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে সমুদ্র যাত্রা শুরু করেছিলেন মৎসজীবীরা। দিঘা মোহনা ছাড়াও পেটুয়া, শঙ্করপুর মৎস্য বন্দর, শৌলা এলাকা থেকে হাজার খানেক লঞ্চ-ট্রলার আর হাজার দশেক মৎসজীবী পাড়ি দিয়েছিয়েন গভীর সমুদ্রে। তাঁদের মধ্যে অর্ধেকের বেশি লঞ্চ-ট্রলার ফিরে এসেছেন, আসছেন অন্যরাও কিন্তু সংবাদ খুবই খারাপ। দেখা মেলেনি ইলিশের।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

মৎসজীবী ও মৎসব্যবসায়ীদের কাছ থেকে জানা গেছে প্রতিবারের মতই মিলছে পমফ্রেট, ভেটকি, ভোলা, ট্যাংরা, চিংড়ি সহ অন্যান্য মাছ কিন্তু ইলিশ উঠছে নাম মাত্র। মৎসজীবীরা বলছেন ধরা পড়া ইলিশের পরিমান হতাশা ব্যঞ্জক। কয়েকটি লঞ্চ বা ট্রলার পেয়েছে হাতেগোনা দু’য়েকটা ইলিশ। আর যারা একটু বেশি পেয়েছেন তাঁদের কপালে জুটেছে ৫০ থেকে ১০০ কেজি। গত ৮ দিনে দিঘা মোহনা এলাকায় মেরে কেটে ৫ টন মত ইলিশ নিলাম হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় আড়তদাররা। তার মধ্যে ওডিশা থেকে আসা ইলিশের পরিমাণই বেশি। গত ২ বছর করোনার জন্য মার খেয়েছে মৎসশিকার তারমধ্যেও যেটুকু হয়েছিল সেখানেও ইলিশের আমদানি হয়নি তেমন। তবে কি এবারও মধ্যবিত্ত বাঙালির পাত হবে ইলিশ হীন?
এদিকে যে অল্প পরিমাণ ইলিশ ধরা পড়ছে তার দামও প্রচুর। চাহিদার চেয়ে আমদানি কম হলে যা হয় আর কি? ৭০০ থেকে ১২০০ গ্রামের ইলিশ ১২০০ থেকে ১৫০০ টাকা দর উঠছে। খোলা বাজারে এই ইলিশ ১০০০ থেকে ১৮০০ টাকা প্রতি কেজি। ফলে ইলিশের ধারে কাছে ঘেঁষতে পারছেন না সাধারণ ক্রেতারা। ফলে মধ্যবিত্তর হেঁসেলে অধরা ইলিশ।

দিঘা ফিশারম্যান এন্ড ফিশ ট্রেডার্স অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক শ্যামসুন্দর দাস বলেন, ‘ সমুদ্রে পাড়ি দেওয়া ৬০ শতাংশ লঞ্চ-ট্রলার ইতিমধ্যে ফিরেছে। অন্যান্য মাছ কমবেশি উঠলেও ইলিশ প্রায় নেই বলা চলে। তবে যে পরিমাণে উঠেছে তা খুবই উল্লেখযোগ্য মাপের এবং দামের।’ তবে ইলশেগুঁড়ি আবহাওয়া তৈরি হওয়ায় এখনই ইলিশের আশা ছাড়ছেন না তাঁরা। অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি প্রণব কর বলেন, ‘ইলিশ ছাড়াই প্রথম দফায় যে পরিমাণ মাছ উঠেছে তা খুব একটা কম না। তবে ডিজেলের যা দাম সেখানে ইলিশ ছাড়া লাভের আশাও খুব একটা নেই।ব্যবসা চালানো মুশকিল হবে।তাই ইলিশ জালে ওঠা চাই। ইলিশ উপযোগী আবহাওয়ায় তৈরি হয়েছে। আশা করছি এবার কমবেশি ইলিশ উঠবে।’ সেই আশা নিয়েই এখন দিন কাটানো ছাড়া উপায় কী?

- Advertisement -
Latest news
Related news