Monday, June 17, 2024

Hiran Chattopadhyay: খড়গপুরে বিজেমুল ! হিরণের ফ্লেক্স বেঁধেই তৃণমূলের বিজয় রথ! জহরকে হারাতে অন্তর্ঘাতের অভিযোগ আর হিরণের তৃণমূলে ফেরা সময়ের অপেক্ষা

It's Bijemul in Kharagpur! Trinamool victory chariot tied to the flex of the Hiran ! Allegations of sabotage to defeat Jahar Paul and return to the TMC of Hiran are certain. After the counting of votes was completed on Tuesday, 'KGP-Bangla' reported that Trinamool Congress is going to form a municipal board with BJP candidate Hiranmoy Chattopadhyay alias Hiran as its chairman. And just a few hours after the news broke, the picture became clear on Tuesday afternoon when a group of youths were seen in the same car with the flag of BJP candidate Hiran on one side and Trinamool candidate Kabita Debnath on the other. Now it is time to return to the TMC of Hiran. However, the TMC leaders said that no such incident has taken place on behalf of their party. We are looking into who caused it.

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: সত্যি সত্যি এবার দেখা মিলল বিজেমূলের। খড়গপুর পুরসভার নির্বাচনে ফল ঘোষণার পর একই গাড়িতে ৩৩নম্বর ওয়ার্ডের জয়ী বিজেপি প্রার্থী হিরন্ময় চট্টোপাধ্যায় ও ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডের জয়ী প্রার্থী তৃনমূলের কবিতা দেবনাথে ফ্লেক্স বেঁধে ডিজে চালিয়ে আনন্দে ফেটে পড়তে দেখা গেল তৃনমূল কংগ্রেস কর্মীদের। যা দেখার পর রীতিমত হতভম্ব হয়ে গিয়েছে স্থানীয় জনতা। ২৪ ঘন্টা আগেও তৃনমূল ও বিজেপির লড়াই যে এভাবে গলাগলিতে পরিণত হয়ে যাবে ভাবতেও পারেননি তাঁরা।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে
We are in the same boat brothers

উল্লেখ্য ৩৩নম্বর ওয়ার্ডে বিজেপি প্রার্থী খড়গপুর শহর বিধায়ক হিরণ ১০৮ ভোটে হারিয়েছেন তৃনমূল প্রার্থী জহরলাল পালকে। অন্যদিকে পাশের ওয়ার্ড ৩৫নম্বরে তৃনমূল প্রার্থী কবিতা দেবনাথ বিজেপি প্রার্থী সীমা ঘোষ রায়কে হারিয়েছেন ১১০০ ভোটে। ভোটের ফলাফল বেরানোর পরই এই দুই বিপরীত দলের জয়ী প্রার্থীর ফ্লেক্স একই গাড়িতে বেঁধে বিজয় উল্লাস উদযাপন কেন এখানেই লুকিয়ে রয়েছে খড়গপুর শহরের এই দুটি ওয়ার্ডে বিজেমূল তত্ত্ব। ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডে তৃনমূল প্রার্থীর বিরুদ্ধে গিয়ে নির্দল হিসাবে দাঁড়িয়ে ছিলেন জহর পালের এক পুত্রবধূ জয়া পাল।

গাড়ি একটাই দু’পাশে বাঁধা দুই প্রার্থীর ব্যানার

অন্যদিকে জহর পাল নিজে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন ৩৩নম্বর ওয়ার্ডে হিরণের বিরুদ্ধে। জহর পাল গোষ্ঠীর অভিযোগ, জহর পালকে হারানোর জন্য জেলার নির্দেশেই তৃনমূল কর্মীদের হিরণকে ভোট দেওয়ার কথা বলা হয়েছিল। অন্যদিকে বিজেপির হিরণ গোষ্ঠী ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডে ভোট দিয়েছে তৃনমূল প্রার্থী কবিতা দেবনাথকে। ওই দুই ওয়ার্ডের বিজেমূলরাই একই গাড়িতে বিজেপি এবং তৃনমূলের ঝান্ডা ও প্রার্থীদের ফ্লেক্স টাঙিয়ে বিজয় উৎসব করেছে।

যদিও শুধু জেলা নয় অনেকেরই অভিমত খোদ রাজ্য থেকেই হিরণকে জেতানোর নির্দেশ এসেছিল দলের কাছে। হিরণকে দলে ফেরানোর জন্য একটি সম্মানজনক পদ খুঁজছিল তৃনমূলের রাজ্য নেতৃত্ব। খড়গপুর পুরসভার চেয়ারম্যান করে সেই কাজই নিশ্চিত করতে চলেছে তৃনমূল। খুব সম্ভবতঃ দ্রুত বিধায়ক পদ ছাড়বেন হিরণ। সেক্ষেত্রে ফের তাকেই বিধায়ক করে উপনির্বাচনে ফিরিয়ে আনবে তৃনমূল। এছাড়াও অন্য কোনও রাস্তা আছে নাকি তাও খোঁজা হচ্ছে।

মঙ্গলবার ভোট গণনা শেষ হওয়ার পরই ‘KGP-বাংলা’ খবর করেছিল যে খড়গপুর পৌরসভার ৩৩ নম্বর ওয়ার্ড থেকে জেতা বিজেপি প্রার্থী হিরন্ময় চট্টোপাধ্যায় ওরফে হিরণকেই চেয়ারম্যান করে পুরসভার বোর্ড গঠন করতে চলেছে তৃনমূল কংগ্রেস। আর সেই খবর প্রকাশের মাত্র কয়েকঘন্টার মধ্যেই সেই চিত্র পরিস্কার হয়ে গেল যখন মঙ্গলবার দুপুরে একই গাড়ির একপাশে বিজেপি প্রার্থী হিরণ ও অন্যপাশে তৃনমূল প্রার্থী কবিতা দেবনাথের ফ্ল্যাগ বেঁধে বিজয় উল্লাসে মেতে উঠতে দেখা গেল একদল যুবককে। এখন হিরণের তৃণমূলে ফেরা শুধু সময়ের অপেক্ষা। যদিও তৃনমূলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে তাঁদের দলের তরফে এরকম ঘটনা কেউ ঘটায়নি। কারা ঘটিয়েছে খোঁজ নিয়ে দেখা হচ্ছে।

- Advertisement -
Latest news
Related news