Saturday, May 25, 2024

Midnapore: আদিবাসীদের ‘গাছের ডালে ঝুলিয়ে’ গ্রেপ্তার অধ্যাপক! পশ্চিম মেদিনীপুরে চাঞ্চল্য

What is meant by indigenous? Answering this question in the online class of the college, the professor said, "Indigenous people are those who used to hang on the branches of trees." Indigenous society roared at this incident. Professors, principals and intellectuals from all over the country demanded immediate arrest of the teacher. Nirmal Bera, a Bengali professor at Sabang Sajanikanta College in West Midnapore district, was arrested till the end. He was first brought to Sabang police station from his house on Monday, the first day of the week. And that's where he was arrested. Police said Professor Bera has been arrested under the Scheduled Castes and Scheduled Tribes Act.

- Advertisement -spot_imgspot_img

শশাঙ্ক প্রধান: আদিবাসী বলতে কী বোঝায়? কলেজের অনলাইন ক্লাসে এই প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে অধ্যাপক বলেছিলেন,’আদিবাসী হল তারাই যারা একসময় গাছের ডালে ডালে ঝুলে বেড়াত।’ এই ঘটনায় গর্জে উঠেছিল আদিবাসী সমাজ। সারা দেশের অধ্যাপক, অধ্যক্ষ, বুদ্ধিজীবীরা দাবি করেছিলেন অবিলম্বে গ্রেফতার করা হোক শিক্ষককুল কলঙ্ক ওই অধ্যাপককে গ্রেফতার করা হোক। শেষ অবধি গ্রেফতার হলেন পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সবং সজনীকান্ত মহাবিদ্যালয়ের বাংলার অধ্যাপক নির্মল বেরাকে। সোমবার সপ্তাহের প্রথম দিনই তাঁর বাড়ি থেকে তাঁকে প্রথম সবং থানায় নিয়ে আসা হয় তাঁকে। এবং সেখানেই তাঁকে গ্রেপ্তারের কথা বলা হয়। পুলিশ জানিয়েছেন তপশিলী জাতি উপজাতি নিপীড়ন বিরোধী আইনে (POA) গ্রেফতার করা হয়েছে অধ্যাপক বেরাকে।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

জাতি বিদ্বেষ মূলক মন্তব্য করার অভিযোগে গত ১৭ই ডিসেম্বর কলেজ থেকে বরখাস্ত করা হয় অধ্যাপক নির্মল বেরাকে। বলা হয়েছিল পরবর্তী নির্দেশ না পাওয়া অবধি তিনি কলেজে যেতে পারবেননা। সেই নির্দেশের বদলে এবার শ্রীঘরে যেতে হল তাঁকে। অধ্যাপক নির্মল বেরার বিরুদ্ধে আদিবাসীদের মারাত্মক অপমান করার এনেছিলেন তাঁরই সহকর্মী অধ্যাপিকা পাপিয়া মান্ডি।

করোনাকালে অনলাইন ক্লাস নেওয়ার সময় আদিবাসী শব্দটির সংজ্ঞা নিরুপন করতে গিয়ে অধ্যাপক বেরা বলেছিলেন, ‘আদিবাসী হল তারাই যারা একসময় গাছের ডালে ডালে ঝুলে বেড়াত।’ অধ্যাপিকা মান্ডি বলেছিলেন, আমি যখন ওই অনলাইন ক্লাসে আদিবাসী শব্দের অর্থ ‘আদিম অধিবাসী’ বলেছিলাম তখন অনলাইন ক্লাসেই অধ্যাপক বেরা ছাত্রছাত্রীদের উপস্থিতিতে আমাকে বলেন, ‘তুমি ভুল শেখাচ্ছ পড়ুয়াদের। আদিবাসী অর্থ যারা গাছের ডালে ডালে ঝুলে বেড়াত।’ অধ্যাপিকা মান্ডি বলেন, ওই নিম্নরুচির মন্তব্য ছিল আমাকে উদ্দেশ্য করেই কারন আমি আদিবাসী সম্প্রদায় ভুক্ত। অত্যন্ত অপমানিত হয়েছিলাম সেদিন। শুধু তাই নয়, ওই অধ্যাপক এর আগেও আমার প্রতি জাতিবিদ্বেষ মূলক ঘৃণা উগরে দিয়েছেন। আমাকে দিয়ে স্টাফরুমের জানলা দরজার পর্দা লাগানোর চেষ্টা করেছেন।’

গত ১৯ অক্টোবর অধ্যাপক নির্মল বেরা এবং কলেজ অধ্যক্ষ তপন দত্তের বিরুদ্ধে সবং থানায় অভিযোগ দায়ের করেন অধ্যাপিকা পাপিয়া মান্ডি। ওই অভিযোগে তিনি বলেন, অধ্যাপক বেরাকে সমর্থন ও সহযোগিতা করে যাচ্ছেন কলেজ অধ্যক্ষ। অধ্যক্ষ নিজেও জাতি বিদ্বেষের পক্ষেই কারন তাঁর কাছে অভিযোগ জানানো স্বত্ত্বেও তিনি অধ্যাপক বেরার বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেননি উল্টে পুরস্কার স্বরূপ শ্রী বেরাকে স্টাফ কাউন্সিলের সম্পাদক করা হয়েছে। পুলিশ একজন উচ্চপদস্থ আধিকারিককে দিয়ে ঘটনার তদন্ত শুরু করে।

এরপর সেই তদন্ত গড়িমসি করা হচ্ছে এই অভিযোগ তুলে আসরে নামে আদিবাসী সমাজের সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ভারত জাকাত মাঝি পারগনা মহল। নিজেদের মধ্যে আলাপ আলোচনার পর গত ১৩ই ডিসেম্বর থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য সবং কলেজ এবং বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয় স্তব্ধ করে দেওয়ার কথা ঘোষণা করে। এরপরই নড়েচড়ে বসে পুলিশ। ওই দিন আদিবাসী সংগঠনের নেতাদের নিয়ে আলোচনায় বসেন পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার পুলিশ সুপার দীনেশ কুমার। তিনি আশ্বস্ত করেন উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে। তারপর ২৪শে জানুয়ারি অধ্যাপক নির্মল বেরাকে বরখাস্ত করা হল।

- Advertisement -
Latest news
Related news