Tuesday, April 16, 2024

Partha Arpita ED: ৩০ কোটি টাকার সাথে অর্পিতার ঘরে সবংয়ের বস্ত্রালয়ের পলিপ্যাক! পার্থকে টাকা দিয়েছিল কে? প্রশ্ন পশ্চিম মেদিনীপুরেও

- Advertisement -spot_imgspot_img

শশাঙ্ক প্রধান: কয়েক রাউন্ড গণনার শেষে রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষা মন্ত্রী তথা বর্তমান শিল্পমন্ত্রী পার্থচট্টোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠ বান্ধবী অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের বেলঘরিয়ার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয়েছে ৩০ কোটি টাকা। যা কিনা শেষ অবধি কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে কেউ বলতে পারছেনা। উদ্ধার হয়েছে ৩কেজি সোনার বাট আর ২৪কোটি টাকা মূল্যের একটি জমির দলিল কিন্তু পশ্চিম মেদিনীপুরের সবং বাসীদের তার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ মনে হয়েছে একটি পলিপ্যাক। কাপড়ের দোকান থেকে জামা কাপড় ভরে দেওয়া হয় এমন একটি সাদা রঙের পলিপ্যাক। যার গায়ে লেখা সাউ বস্ত্রালয়, সবং। বুধবার অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের বেলঘরিয়ার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হওয়া টাকার পাহাড়ের যে ছবি ইডি (Enforcement Directorate) প্রকাশ করেছে তার ওপরেই দেখা গেছে ওই পলিপ্যাকটি। যাতে লেখা রয়েছে, ‘সাউ বস্ত্রালয়, অভিজাত বস্ত্র বিপনী, সবং বাজার।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

সাদা গায়ের ওপর কালো কালিতে ছাপা শুভবিবাহ, উৎসব, অনুষ্ঠানের জন্য প্রয়োজনীয় বস্ত্র পাওয়া যায় বলে যে প্রমান সাইজের পলিপ্যাকটি ইডির ছবিতে দেখা গেছে তাতে কত টাকা ধরতে পারে বলে চর্চা শুরু হয়েছে সবং-য়ে। কারন সবংবাসী নিশ্চিতভাবেই ধরে নিয়েছেন যে ওই পলিপ্যাকে করেই টাকার বান্ডিল গেছিল পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে। এখন প্রশ্ন একটাই ওই টাকা কী সরাসরি কেউ পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে পৌঁছে দিয়েছিল চাকরি পাওয়ার জন্য নাকি সবংয়ের কোনও নেতার হাত ধরে টাকা পৌঁছেছিল পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে?

কারও কারও মতে সদ্য হয়ে যাওয়া প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ, উৎসশ্রীতে ট্রান্সফার ইত্যাদি বিভিন্ন ক্ষেত্রের জন্য সবং থেকে টাকা পৌঁছেছিল পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে। তাছাড়াও কয়েকবছর আগেও শিক্ষাক্ষেত্রে যে নিয়োগ হয়েছে তাতে পিংলা ও সবং এবং পার্শ্ববর্তী ময়না থানা এলাকাতেও বেশকিছু নিয়োগ হয়েছে। যেহেতু এখন দেখা যাচ্ছে যে পার্থের দুনিয়ায় কোনও ফ্রেস নিয়োগ হতনা তাই টাকা দিয়েই অনেকে নিয়োগপত্র পেয়েছে। আর সেই টাকাই পাঠানো হয়েছে ওই পলিপ্যাকের মাধ্যমে।

এসএসসি দুর্নীতি মামলায় এতদিন উঠে এসেছিল পিংলার খিরিন্দা গ্রামে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের প্রয়াত স্ত্রীর নামে গড়ে ওঠা একশ কোটিরও বেশি টাকা খরচ করে বাবলি চ্যাটার্জী মেমোরিয়াল ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের নাম। বেআইনি টাকা ওখানে খেটেছে এই সন্দেহে গত শুক্রবার ইডি তল্লাশি চালায় পিংলায়। এবার উঠে আসল সবংয়ের নামও। একটি সূত্রে দাবি করা হচ্ছে সবং ও পিংলার দুই বড় নেতা এবং পশ্চিম মেদিনীপুরের প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের প্রাক্তন এক চেয়ারম্যানের মাধ্যমে বিপুল অংকের টাকা পৌঁছে ছিল পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে। দুর্নীতির দায়ে সম্প্রতি অপসারিত হন তিনি। ইডির নজরে এবার তারাই, প্রশ্ন এবার কী তবে ইডির তল্লাশিতে সবংও?

- Advertisement -
Latest news
Related news