Monday, April 15, 2024

Fake News about stray Dogs: পথ কুকুর নিয়ে মিডিয়ায় দায়িত্ব জ্ঞানহীন ভুয়ো খবর, বললেন মানেকা গান্ধী! হুমকির মুখে পশুপ্রেমীরা

If a stray dog ​​bites someone, those who feed it regularly will be held responsible. The Supreme Court has made such a proposal on Friday. In this regard, MP Maneka Gandhi, the leader of the animal-loving charity organization 'People for Animals', said that, "This news is fake and irresponsible. We were present in court and neither the court nor any judge spent a single word on this," former minister Mrs Gandhi said in a video message on Saturday. Since this fake news was broadcast, various animal loving people and organizations have been facing threats. Shibu Rana, a member of 'Midnapore Kharagpur Street Animals Lovers' organization and a prominent animal lover, said, 'There are some people who cannot tolerate stray dogs and some unfortunate stray dogs are taking advantage of this fake news.' Shibu said, 'Many of our members have already told us that they are afraid. It saddens us to hear that some people who used to give food etc to stray dogs out of kindness are also not willing to give food due to fear of this fake news. Dogs in various housing areas will starve to death if this continues. Because we don't feed dogs inside neighborhoods, in residential areas, we only feed dogs on open roads."

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: কোনও পথকুকুর (Stray dog) কাউকে কামড়ালে, তাকে নিয়মিত যাঁরা খেতে দেন তাঁরাই দায়ী হবেন। শুক্রবার নাকি এমনই প্রস্তাব দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট (Supreme Court)। সুপ্রিম কোর্টের বয়ানের নাম করে এমনও দাবি করা হয়েছে যে, শীর্ষ আদালত নাকি আরও জানিয়েছে, ওই পথকুকুরদের টিকাকরণের দায়িত্বও তাঁদেরই নিতে হবে যাঁরা নিয়মিত তাঁদের খেতে দেন ও দেখভাল করেন! এই মর্মে বিভিন্ন সংবাদপত্রে ও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশিত সংবাদকে সম্পূর্ণ ভুয়ো এবং দায়িত্ব জ্ঞানহীন খবর বলে জানালেন পশুপ্রেমী সমাজসেবী সংস্থা ‘পিপল ফর আ্যনিমেলস’ এর কর্নধার (Maneka Gandhi is the founder of People For Animals) সাংসদ মানেকা গান্ধী। শনিবার একটি ভিডিও বার্তায় প্রাক্তন মন্ত্রী শ্রীমতি গান্ধী জানিয়েছেন, ” এই খবর ভুয়ো এবং দায়িত্ব জ্ঞানহীন। আমরা আদালতে উপস্থিত ছিলাম আদালত বা কোনও বিচারপতিই এই নিয়ে একটিও শব্দ খরচ করেননি।”

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

মানেকা গান্ধী আরও জানিয়েছেন, ” বিচারপতিদের মুখে যা বসানো হয়েছে বা আদালতের রায় বলে যা চালানো হচ্ছে তা কেরলের এক ব্যাক্তির যিনি এই মামলা করে ছিলেন। বিচারপতিরা এই নিয়ে কোনও মন্তব্যই করেননি। বিচাপতিদের প্রস্তাব বলে যা দাবি করা হয়েছে তা পুরোপুরি ভিত্তিহীন এবং অসত্য।” তিনবারের প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, ‘ প্রথমে দিল্লির একটি মিডিয়া খবরটি করে কিন্তু আসল ঘটনা জানার পরই সম্পাদক খবরটি তুলে নেন। কিন্তু অনেকে সেটাকেই খবর বলে প্রচার করতে শুরু করেন যা পুরোপুরি ভুয়ো (Fack News)।

এদিকে এই ভুয়ো খবর সম্প্রচারিত হওয়ার পর থেকেই বিভিন্ন পশুপ্রেমী ব্যাক্তি ও সংগঠনগুলিকে হুমকি (Threat)র মুখে পড়তে হচ্ছে বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সংগঠনের কর্তা ব্যক্তিরা। ‘মিডনাপুর খড়গপুর স্ট্রিট আ্যনিমেলস লাভার্স’ সংগঠনের সদস্য ও বিশিষ্ট পশুপ্রেমী শিবু রানা বলেন, ‘ কিছু মানুষ আছেন যাঁরা পথ কুকুরদের সহ্য করতে পারেননা এবং কিছু দুর্বিত্ত পথ কুকুররা যাদের অসুবিধার কারণ হয়ে দাঁড়ায় তারাই এই ভুয়ো খবরের সুযোগ নিচ্ছে।’ শিবু বলেন, ‘ ইতিমধ্যেই আমাদের একাধিক সদস্য জানিয়েছেন যে তারা চোখ রঙানির মুখে পড়ছেন। আমাদের আরও খারাপ লাগছে এই কথা শুনে যে কিছু মানুষ যাঁরা দয়া বশত পথ কুকুরদের খাবার ইত্যাদি দিতেন তাঁরাও এই ভূয়ো খবরে ভয় পেয়ে খাবার দিতে চাইছেন না। বিভিন্ন আবাসন এলাকার কুকুররা না খেতে পেয়ে মারা যাবে যদি এটা চলতে থাকে। কারন পাড়ার ভেতরে, আবাসন এলাকায় কুকুরদের আমরা খাবার দেইনা আমরা শুধু খোলা রাস্তার ওপর কুকুরদেরই খাবার দেই।”

মানেকা গান্ধীও তাঁর ভিডিও বার্তায় বলেছেন, “পথ কুকুরদের পছন্দ করেন না এমন ব্যাক্তিরা এই ভুয়ো খবরের সুযোগ নিচ্ছে। মিডিয়ার দায়িত্ব জ্ঞানহীনতাই এর কারন।” পশুপ্রেমী সংগঠনগুলি প্রশাসনের কাছে আবেদন করেছে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে উপযুক্ত ব্যবস্থা নিক তারা যাতে না পথ কুকুরদের অনাহারে মৃত্যুর মুখে পড়তে হয়, যাতে না পশু প্রেমীদের অযথা নিগ্রহের শিকার হতে হয়। উল্লেখ্য ওই মামলাটির পরবর্তী শুনানি আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর । এই মামলায় অন্যতম পার্টি হয়েছে ‘পিপল ফর আ্যনিমেলস’।

- Advertisement -
Latest news
Related news