Monday, April 15, 2024

Agnipath: চার বছরের জন্য ‘ঠিকা সৈন্য’ নিয়োগ! জ্বলছে বিহার, বাতিল একের পর এক ট্রেন

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: ঠিকা শ্রমিকের মতই এবার ঠিকা সেনা! এবার ঠিকায় দেশপ্রেম! কেন্দ্রের ‘অগ্নিপথ’ প্রকল্প। চার বছরের জন্য চুক্তিভিত্তিক সেনায় নিয়োগ। চার বছর পর দেশপ্রেমের ঠিকা শেষ। চাকরি শেষ। আর এই ঠিকা ভিত্তিক সেনা নিয়োগের প্রতিবাদে জ্বলছে বিহার। দফায় দফায় বিক্ষোভ চলছে বিহারের বিভিন্ন প্রান্তে। ছপরায় একটি ট্রেনে আগুন লাগিয়ে দেন বিক্ষোভকারীরা। একটি বাসেও ভাঙচুর চালানো হয় বলে অভিযোগ উঠেছে। পরিস্থিতি এতটাই জটিল হয়ে উঠেছে যে অন্তত ২২টি ট্রেন বাতিল করতে হয়েছে রেলকে। আরও ছ’টি ট্রেনের গতিপথ বদল করা হয়েছে। যদিও এটা সাময়িক কিন্তু পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আসলে কী হবে বলা মুশকিল। কেন্দ্র সরকারের এই সিদ্ধান্তকে কটাক্ষ করেছেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী এনডিএ শরিক নীতিশ কুমার স্বয়ং। আর তারপর থেকে যেন ঘৃতহুতি পড়েছে আগুনে।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

রেলের তরফে জানানো হয়েছে এখনও অবধি বাতিল করা হয়েছে ১৩২৫০ ভভুয়া রোড-পটনা এক্সপেস, ১২৫৬৭ সহরসা-পটনা এক্সপ্রেস, ১২৫৬৮ পটনা-সহরসা এক্সপ্রেস, ১৫২৮৩ মণিহারী-জয়নগর এক্সপ্রেস, ০৩২০৩ পটনা-ডিডিইউ মেমু প্যাসেঞ্জার স্পেশাল, ০৩২২৭ দানাপুর-রঘুনাথপুর মেমু প্যাসেঞ্জার স্পেশাল, ০৩২৭৮ রঘুনাথপুর-পটনা মেমু প্যাসেঞ্জার স্পেশাল, ০৫২৪৩ সহরসা-সমস্তিপুর প্যাসেঞ্জার স্পেশাল, ০৫২৭৫ সহরসা-সমস্তিপুর প্যাসেঞ্জার স্পেশাল, ০৫২২১ সহরসা-সমস্তিপুর প্যাসেঞ্জার স্পেশাল, ০৫২৭৮ সমস্তিপুর-সহরসা প্যাসেঞ্জার স্পেশাল, ০৫৫১১ সমস্তিপুর-সোনপুর প্যাসেঞ্জার স্পেশাল, ০৫২৫৭ মুজফ‌্ফরপুর নরকটিয়াগঞ্জ প্যাসেঞ্জার স্পেশাল, ০৩৩৭৩ পটনা-গয়া প্যাসেঞ্জার স্পেশাল, ০৩৩৪০ গয়া-পটনা প্যাসেঞ্জার স্পেশাল, ০৩৩৬৫ পটনা-গয়া প্যাসেঞ্জার স্পেশাল, ০৩৩৩৮ গয়া-পটনা প্যাসেঞ্জার স্পেশাল, ০৫৫৪৮ সহরসা-লহেরিয়াসরায় প্যাসেঞ্জার স্পেশাল, ০৫৫৪৭ লহেরিয়াসরায়-সহরসা প্যাসেঞ্জার স্পেশাল, ০৫২৮৭ মুজফ‌্ফরপুর-রক্সৌল প্যাসেঞ্জার স্পেশাল, ০৫৫৩৪ জয়নগর-দ্বারভাঙা প্যাসেঞ্জার স্পেশাল ও ০৫৫৩৩ দ্বারভাঙা-জয়নগর প্যাসেঞ্জার স্পেশাল। এছাড়াও দানাপুর ডিভিশনে আরও ছয়টি ট্রেনের পথ বদল করা হয়েছে।

বিহারে সর্বাধিক বিক্ষোভ প্রতিফলিত হতে দেখা গিয়েছে বৃহস্পতিবার। রাজ্যের বক্সার, নওয়াদা, ছপরা, বেগুসরাই, আরা, মুঙ্গের, জেহানাবাদে যেন আগুনের মতো ছড়িয়ে পড়েছে বিক্ষোভ। রাস্তায় নেমে এসেছে তরুণ সমাজের এক বিপুল অংশ। তাঁরা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে স্লোগানে ফেটে পড়েছেন। অবরোধ চলছে জাতীয় সড়কেও। টায়ার জ্বালানো, পাথর ছোড়া, গাড়ি ও ট্রেন ভাঙচুরের মতো ঘটনাও ঘটেছে। কোথাও কোথাও পুলিশ বাধা দিতে গিয়ে বিক্ষোভকারীদের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েছে। পুলিশ লাঠি চালালে, কাঁদানে গ্যাস ছুঁড়লে কয়েক জন বিক্ষোভকারী আহত হয়েছেন আরা এবং জেহানাবাদে।

দু’দিন আগে মঙ্গলবার, অগ্নিপথ প্রকল্পের ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ। ওই প্রকল্পে সাড়ে ১৭-২১ বছরের তরুণ-তরুণীরা চার বছরের জন্য মাসিক ৩০-৪৫ হাজার টাকার চুক্তির ভিত্তিতে সশস্ত্র বাহিনীর তিন শাখায় (স্থল, নৌ এবং বায়ুসেনা) যোগ দিতে পারবেন। তাঁদের বলা হবে ‘অগ্নিবীর’। সেনায় শূন্যপদ ও যোগ্যতার ভিত্তিতে চতুর্থ বছরের শেষে সেই ব্যাচের সর্বাধিক ২৫ শতাংশ অগ্নিবীরকে সেনায় অন্তর্ভুক্ত করা হবে। বাকিদের ১১-১২ লক্ষ টাকা হাতে দিয়ে পাঠানো হবে অবসরে। থাকবে না কোনও পেনশন। জানা গেছে বিহার থেকে প্রতিবছর একটি বড় অংশের তরুণ নিযুক্ত হন সেনাবাহিনীতে। কর্মসংস্থান সংকুচিত হওয়ার যুগে একমাত্র সেনাবাহিনীতেই নিয়োগের সংখ্যা ছিল বেশি। তরুনদের সেই একমাত্র ভরসার জায়গাও মাত্র ৪ বছরের জন্য ঠিকাচুক্তি ভিত্তিক হওয়ায় হতাশায় ভেঙে পড়েছেন তরুণ প্রজন্ম।

- Advertisement -
Latest news
Related news