Monday, May 20, 2024

Omicron: রাজস্থানে ওমিক্রনে আক্রান্ত একই পরিবারের ৯জন! মহারাষ্ট্রে একই সাথে মিলল ৭ করোনা আক্রান্ত, ৪দিনে দেশে ২১আক্রান্তের খোঁজ

Omicron was found in the bodies of 9 members of the same family in Jaipur, Rajasthan. Four of them are said to be from South Africa. And in Maharashtra, 8 Omicron victims were found together. 4 of them have returned from abroad. The rest of the people are said to have come in contact with them. As a result, the total number of Omicron victims in the country stood at 21.

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: করোনা মহামারীর শুরুটা অনেকটাই এভাবেই হয়েছিল, বিদেশ থেকে আসা ব্যক্তিদের সূত্রেই ছড়িয়ে পড়েছিল কোভিড ১৯! রবিবার দেশে মোট ১৬জনের দেহে করোনার নতুন রূপে ওমিক্রনের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। এঁদের মধ্যে ৮জনই বিদেশ থেকে এসেছেন এবং বাকিরা তাঁদের সংস্পর্ষে আক্রান্ত হয়েছেন বলেই জানা গেছে। এদিকে নতুন এই ১৬জন আক্রান্ত সমেত মাত্র ৪ দিনেই দেশের ওমিক্রন আক্রান্তের খোঁজ মিলল। এটাও ঠিক করোনা শুরুর প্রথম দিনগুলোর মতই।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

রাজস্থানের জয়পুরে জয়পুরে একই পরিবারের ৯ জনের শরীরে পাওয়া গিয়েছে ওমিক্রন। তাঁদের মধ্যে ৪ জন দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে এসেছিলেন বলে জানা গিয়েছে। আর মহারাষ্ট্রে একসঙ্গে ৭ ওমিক্রন আক্রান্তের খোঁজ মিলল। এদের মধ্যে ৪ জন বিদেশ থেকে ফিরেছেন। বাকিরা জন এদের সংস্পর্শে এসেছিলেন বলে জানা গিয়েছে। এর ফলে সব মিলিয়ে দেশে ওমিক্রন আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ২১।

বিশ্বের ৩৮টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাসের (Corona Virus) নতুন স্ট্রেন ‘ওমিক্রন’। গতকাল পর্যন্ত ভারতে ৪ ওমিক্রন আক্রান্তের খোঁজ মিলেছিল। এদের মধ্যে দু’জনের খোঁজ মিলেছিল কর্ণাটকে। একজন গুজরাটের (Gujarat) জামনগরের, অন্যজন মুম্বইয়ের। এরপর আজ সকালেই দিল্লিতে আরও এক ওমিক্রন আক্রান্তের খোঁজ মেলে। এবার শুধু মহারাষ্ট্রেই একসঙ্গে ৭ ওমিক্রন আক্রন্তের খোঁজ মিলল। অন্যদিকে রাজস্থানে একই পরিবারের ৯ জন ওমিক্রনে আক্রান্ত হয়েছে বলে জানা গেল।

মহারাষ্ট্র প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, এক মহিলা ও তাঁর দুই মেয়ে সম্প্রতি নাইজেরিয়া থেকে ফিরেছেন। ওই মহিলার ভাই এবং তাঁর দুই মেয়েও সংস্পর্শে এসে ওমিক্রনে আক্রান্ত হয়েছেন। প্রত্যেকেই পুনের শহরতলির বাসিন্দা। আরও এক ব্যক্তি সম্প্রতি ফিনল্যান্ড থেকে ফিরেছেন, তিনিও ওমিক্রনে আক্রান্ত। অন্যদিকে রাজস্থানের ওই পরিবারের ওমিক্রন আক্রান্তদের মধ্যে ৪ জন সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ফিরেছেন বলে জানা গিয়েছে। উল্লেখ্য, রবিবার সকালেই তানজানিয়া থেকে ফেরা ৩৭ বছরের এক ব্যক্তি ওমিক্রনে আক্রান্ত বলে জানা গিয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার জানা যায়, জিম্বাবোয়ে থেকে গুজরাটে ফেরা এক ব্যক্তি কোভিড আক্রান্ত। এরপরই ওই ব্যক্তির নমুনা জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ের জন্য পাঠানো হয়। শনিবার জানা যায়, তিনি করোনা ভাইরাসের নতুন স্ট্রেন ওমিক্রনে আক্রান্ত। এরপর শনিবার সন্ধ্যায় জানা যায়, মুম্বইয়ের এক ব্যক্তি ওমিক্রনে আক্রান্ত হয়েছেন। মহারাষ্ট্রের বাসিন্দা বছর ৩৩-এর ওই ব্যক্তি সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে দুবাই হয়ে দিল্লিতে আসেন। সেখান থেকে মুম্বইয়ে ফেরেন বলে জানা গিয়েছে। ওই ব্যক্তি ওমিক্রনে আক্রান্ত জানার পর তাঁকে মুম্বইয়ের একটি কোভিড কেয়ার সেন্টারের আইসোলেশান ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার প্রথমবার ভারতে করোনা ভাইরাসের নয়া স্ট্রেন ‘ওমিক্রনে’র অস্তিত্ব মেলে। কর্ণাটকের ২ ব্যক্তির শরীরে করোনার নমুনা পরীক্ষার ফলাফল জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ের পর জানা যায়, তাঁদের দেহে থাবা বসিয়েছে ওমিক্রন। এঁদের একজনের বয়স ৬৬ বছর, অপরজন ৪৬ বছরের ব্যক্তি। এরপর চাঞ্চল্যকর তথ্যও সামনে আসে। জানা যায়, বেঙ্গালুরুর ওমিক্রন আক্রান্ত ৬৬ বছরের ব্যক্তি কর্ণাটকে নেই। গত ২৭ নভেম্বর বিমানে চেপে তিনি দুবাই চলে গিয়েছেন।

- Advertisement -
Latest news
Related news