Tuesday, June 25, 2024

Jhargram Leopard:বাঘ পালালো ঝাড়গ্রাম চিড়িয়াখানা থেকে, হুলুস্থুল এলাকা জুড়ে! রাস্তায় পুলিশ ও বনবিভাগ, চলছে মাইকিং

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: ঝাড়গ্রাম চিড়িয়াখানা বা মিনি জু থেকে একটি চিতা বাঘ (লেপার্ড) পালিয়ে গেছে বলে খবর মিলেছে। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ঝাড়গ্রাম শহর এবং তার আশেপাশের এলাকায়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার মুখে ঘটে যাওয়া এই অঘটনের খবর পাওয়ার সাথে সাথেই রাস্তায় নেমে পড়েছেন পুলিশ ও বনদপ্তরের আধিকারিক ও কর্মীরা। মাইকিং করে মানুষকে অযথা আতঙ্কিত না হওয়ার জন্য আবেদন জানানো হচ্ছে। পাশাপাশি মানুষকে এও বলা হচ্ছে যে চিতাবাঘ বা লেপার্ড জাতীয় কিছু দেখলে যেন পুলিশ অথবা বনদপ্তরের খবর দেওয়া হয়।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

উল্লেখ্য ঝাড়গ্রাম শহর থেকে দেড় কিলোমিটার দূরত্বে এই মিনি-জু যা সাধারণের কাছে চিড়িয়াখানা নামেই পরিচিত। এই চিড়িয়াখানায় ২টি লেপার্ড ছিল বলেই জানা গেছে। এরমধ্যে পালিয়ে যাওয়া লেপার্ডটিকে ২০১৯ সালে চিড়িয়াখানায় আনা হয়েছিল। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় খাঁচা ভেঙে ওই লেপার্ডটি পালিয়েছে বলেই প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। এই চিড়িয়াখানাটি ঝাড়গ্রাম শহর লাগোয়া হলেও এটি গ্রামীন ঝাড়গ্রামের বাঁধগড়া অঞ্চলের মধ্যে অবস্থিত। খুব স্বাভাবিক ভাবেই ওই এলাকাতেই আতঙ্ক ছড়িয়েছে বেশি। পুলিশের পক্ষ থেকে তাই বাঁধগড়া অঞ্চল জুড়েই বেশি মাইকিং করা হচ্ছে। মানুষকে ঘরের বাইরে না বের হওয়ার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি মানুষকে জানানো হচ্ছে বাঘ জাতীয় কিছু দেখলেই যেন বনদপ্তরকে খবর দেওয়া হয়।

এদিকে বাঁধগড়া এলাকাটি পুরোপুরি জঙ্গল ঘেঁষা বলে পালিয়ে যাওয়া বাঘের সন্ধান পেতে কালঘাম ছুটতে পারে বনদপ্তরের। তার ওপর রাত হয়ে যাওয়ায় সমস্যা আরও বেড়েছে। অবশ্য বাঘ পালানোর খবর ছড়িয়ে পড়তে আতঙ্ক ছড়িয়েছে ঝাড়গ্রাম শহরেও। পাছে লেপার্ড শহরে ঢুকে পড়ে এই আতঙ্কে কাঁটা হয়ে আছে শহরের মানুষজনও। যদিও বনদপ্তরের কর্তাদের অনুমান অন্ধকার এবং জঙ্গল ছেড়ে লেপার্ড হয়ত আলোকিত শহরে ঢুকবেনা। কিন্তু এটা কেবলই সম্ভবনা মাত্র। জানোয়ার কোথায় কখন যাবে তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছেনা। ফলে দুশ্চিন্তা থেকেই যাচ্ছে।

এদিকে মাত্র ২বছর আগে বাঘ পিটিয়ে মারার ঘটনায় কলঙ্কিত হয়ে আছে ঝাড়গ্রাম ও পশ্চিম মেদিনীপুর বনাঞ্চল। ঘটনার জের ছড়িয়েছে জাতীয় ব্যাঘ্র কমিশন অবধি। আদালতের নির্দেশে তদন্ত চলছে সেই ঘটনায় যাতে রীতিমত দুশ্চিন্তায় রয়েছে বনদপ্তর। রয়েল বেঙ্গল টাইগারের সঙ্গে সেই দুর্ভাগ্যজনক ঘটনার পুনরাবৃত্তি যাতে কোনও ভাবেই না ঘটে তা নিশ্চিত করতে বনদপ্তর বদ্ধপরিকর। তাই লেপার্ডটি দেখা মাত্রই যেন বনদপ্তর বা পুলিশকে খবর দেওয়া হয় তা বারংবার মাইকিং করে জানানো হচ্ছে।   আরও বিস্তারিত আসছে

- Advertisement -
Latest news
Related news