Sunday, April 14, 2024

Kharagpur: IIT বাইপাসে নামলেই দুর্ঘটনা অথবা জামা কাপড় নষ্ট করে বাড়ি ফিরতে হবে! রাস্তা সারানোর দাবিতে রাস্তায় সিপিএম

If you are a little careless, you will have to return home after an accident or get your clothes dirty. Thousands of people in 4 wards of Kharagpur Municipality are in such a state of disarray on the State high way. Such is the case with IIT bypass or IIT perimeter roads. Day after day, the road is dilapidated, there are big holes all over the road and water is frozen in the holes. Clothes are ringing in addition to the possibility of an accident. Disgusted pedestrians in the mud falling from the wheels of a car passing in the opposite direction. From the IIT main gate of the Kharagpur-Keshiary state high way to the Prembazar gate, about two and a half kilometers of the road, where there are ditches, there is no lighting on the road. As a result, accidents are also happening on that part of the road. But the CPM's South Area Committee took to the streets demanding immediate removal of the road in this situation.

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: একটু অসতর্ক হলেই দুর্ঘটনা অথবা জামা কাপড় নোংরা করে ফিরতে হবে বাড়ি। মহার্ঘ্য রাজ্য সড়কের এমনই অব্যবস্থায় নাজেহাল খড়গপুর পুরসভার ৪টি ওয়ার্ডের হাজার হাজার মানুষ। এমনই অবস্থা IIT বাইপাস কিংবা IIT পেরিমিটার রাস্তার। দিনের পর দিন বেহাল রাস্তা, রাস্তা জুড়ে বড় বড় গর্ত আর গর্তের মধ্যে জমে রয়েছে জল। দুর্ঘটনার সম্ভবনার পাশাপাশি জামা কাপড়ের বারোটা বাজছে। বিপরীত দিক থেকে পেরিয়ে যাওয়া গাড়ির চাকা থেকে ছিটকে পড়া জলকাদায় নাস্তানাবুদ পথচারীরা। খড়গপুর-কেশিয়াড়ী রাজ্য সড়কের IIT মেনগেট থেকে শুরু করে প্রেমবাজার গেট অবধি প্রায় আড়াই কিলোমিটার রাস্তায় কোথাও যেমন খানাখন্দ রয়েছে কোথাও আবার রাস্তায় নেই আলোর ব্যবস্থা। ফলে রাস্তার ওই অংশেও দুর্ঘটনা ঘটছে। কিন্তু বিষয়টি নিয়ে এমতাবস্থায় দ্রুত রাস্তা সরানোর দাবি নিয়ে রাস্তায় নামল খড়গপুর শহর সিপিএমের দক্ষিণ এরিয়া কমিটি।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

খড়গপুর পুরসভার অন্তর্গত ৩৩, ৩৪, ৩৫ এবং ৩০নম্বর (তালবাগিচা, প্রেমবাজার, সোসাইটি, দীনেশ নগর, রবীন্দ্রপল্লী, ডিভিসি, মায়াপুর, ইত্যাদি) ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের খড়গপুর সদরের মূল অংশের সঙ্গে যোগাযোগের একমাত্র সড়ক এই IIT পেরিমিটার রোড। এর কোনো বিকল্প রাস্তা না থাকায় এই রাস্তা দিয়েই মানুষকে যাতায়াত করতে হয়। বাজার ঘাট থেকে থানা পুলিশ প্রশাসন, হাসপাতাল সব কিছুরই সুবিধা পেতে মানুষকে এই রাস্তা ব্যবহার করতে হয়। ফলে প্রতিদিনই হাজার হাজার মানুষের চলাচল এই রাস্তা দিয়েই। গোটা রাস্তায় দিনের বেলায় যেমন খানাখন্দের সমস্যা রাতে তেমন বাড়তি সমস্যা হিসাবে যুক্ত হয় পথবাতি না থাকা। এই রকম একটু গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা কী ভাবে দিনের পর দিন প্রশাসনের নজর এড়িয়ে থাকে এই প্রশ্ন তুলেই শনিবার রাস্তায় নামল সিপিএম।

পেরিমিটার রাস্তার একাংশ জুড়ে ব্যাপক জমায়েত করার পাশাপাশি অবিলম্বে রাস্তা সরানোর দাবিতে খড়গপুর মহকুমা শাসকের কাছে একটি দাবি স্মারক জমা দেওয়ার উদ্দেশ্যে গন স্বাক্ষর সংগ্ৰহ অভিযান করা হয়। সিপিএমের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে সি আর নগর থেকে ডিভিসি মোড় অবধি রাস্তার দীর্ঘ মেয়াদি সুবিধা জনক পদ্ধতিতে মেরামতি করতে হবে। দুর্গামন্দির গেট থেকে প্রেমবাজার গেট অবধি রাস্তায় আলোর ব্যবস্থা করতে হবে । সি আর নগর থেকে ডিভিসি অবধি রাস্তার জলনিকাশি ব্যবস্থা করতে হবে। সিপিএমের পক্ষ থেকে আরও অভিযোগ করা হয়েছে IIT উড়ালপুলের ওপরে থাকা বাতিস্তম্ভ থেকে উন্মুক্ত বৈদ্যুতিক তার যত্রতত্র বেরিয়ে থাকায় দুর্ঘটনার সম্ভবনা রয়েছে।

এদিন সিপিএমের পক্ষ থেকে পথচারীদের কাছ থেকে স্বাক্ষর সংগ্রহের পাশাপাশি IIT পেরিমিটার রোডের ওপর তৈরি হওয়া খানাখন্দে বলি, ইটের টুকরো, রাবিশ ইত্যাদি ফেলে বেশ কিছু গর্ত বোঝানো হয়। খড়গপুর সিপিএম এরিয়া কমিটির সম্পাদক অমিতাভ দাস বলেন, ‘ এই একই রাস্তা দিয়ে তো পুলিশ, প্রশাসনের আধিকারিক, কর্মীদের যাতায়াত করতে হয়। তাঁরা দিন রাত রাস্তার অবস্থা দেখতে পেয়েও যখন না দেখার ভান করে থাকছেন তখন রাস্তায় নামা ছাড়া উপায় কী? আমরা প্রশাসনকে একটা প্রাথমিক বার্তা দিলাম। এরপরও দাবি না মিটলে প্রশাসনকে এখানে আনার উদ্যোগ নেব। আশা করছি সেই বৃহৎ আন্দোলনের আগেই ঘুম ভাঙবে কুম্ভকর্ণ প্রশাসনের।

অন্যদিকে খড়গপুরের শহরের বাকি অংশের মানুষের অভিযোগ শুধুই IIT পেরিমিটার রোড নয় একই অবস্থা IIT ফ্লাইওভার থেকে পশ্চিমে CME গেট যাওয়ার রাস্তা। ৩১ এবং ৩২ নম্বর বড় আয়মা, ছোট আয়মা, রামনগরের বাসিন্দারা অভিযোগ করেছেন প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে।

- Advertisement -
Latest news
Related news