Monday, May 20, 2024

mystery fever in UP: আরও শিশুর মৃত্যু! দু’সপ্তাহে ৮০ মৃত্যু নিয়ে অজানা জ্বরে কাঁপছে উত্তর প্রদেশ

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: গত ২৪ঘন্টায় অজানা জ্বরে ফের ১২জন শিশুর মৃত্যু হয়েছে। আর সব মিলিয়ে ৫২জন শিশু সহ গত ১সপ্তাহে মৃত্যু হয়েছে ৮০ জনের। আপাততঃ ভাইরাল ফিভারের লক্ষনবাহী এই জ্বরের কারন অনুসন্ধান করা এখনও সম্ভব হয়নি। জ্বর ছড়িয়ে পড়েছে আগ্রা, মথুরা, মনিপুরী, এটাহ, কিষানগঞ্জে। তবে সব চেয়ে খারাপ অবস্থা ফিরোজাবাদে, শেষ ১২জনের মৃত্যুর খবর এসেছে এখান থেকেই। পরিস্থিতি সামাল দিতে চূড়ান্ত তৎপরতা শুরু হয়েছে প্রশাসনিক স্তরে। যদিও এখনও অবধি নিয়ন্ত্রণের বাইরেই আক্রান্তের সংখ্যা।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

চিৎসকরা জানিয়েছেন উচ্চ তাপমাত্রার সঙ্গে শরীরের জলাভাব বা ডিহাইড্রেশন (dehydration) নিয়ে রোগীরা আসছেন। রক্তের পেলেট রেট কাউন্ট ( platelet count) হঠাৎই অস্বাভাবিক ভাবে কমে যাচ্ছে। কিছুটা যেন ডেঙ্গির লক্ষণের মত। ফিরোজাবাদের হাসপাতালগুলিতে শয্যার এবং ব্লাড ব্যাঙ্ক গুলিতে রক্তের অভাব দেখা দিয়েছে। আগামী ৬ই সেপ্টেম্বর অবধি স্কুল বন্ধ করে দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

সোমবারই ফিরোজাবাদ মেডিক্যাল কলেজ পরিদর্শনের সময় একটি শিশুকে দেখতে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। বুধবার তারও মৃত্যু হয়েছে। এই নিয়ে সেখানে গত ১৫ দিনে ৫২ শিশুর প্রাণ কাড়ল অজানা জ্বর। ফিরোজাবাদ মেডিক্যাল কলেজের প্রিন্সিপাল সঙ্গীতা আনেজা জানিয়েছেন, এই মুহূর্তে হাসপাতালে ২৪০টি শিশু ভর্তি আছে। সকলেই ডায়েরিয়া ও বমির উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিল।

চিকিৎসকেরা বলছেন, ভর্তি হওয়া ওই শিশুদের মধ্যে ডেঙ্গি ও ম্যালেরিয়ার উপসর্গও রয়েছে। তবে কারও করোনা ধরা পড়েনি। জ্বরের কারন জানার জন্য সরকারি দলের পাশাপাশি লখনউয়ের কিং জর্জেস মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটির বিশেষ দল প্রতিটি মৃত্যুর কারণ খতিয়ে দেখে সরকারকে রিপোর্ট দেবে বলে জানিয়েছেন যোগী আদিত্যনাথ।

অন্য দিকে, এত শিশু একসঙ্গে অজানা জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হওয়ায় ওই হাসপাতালে জায়গার অভাব দেখা দিয়েছে। হাসপাতালের কর্মীরা বলছেন, প্রতি ঘণ্টায় ৮ থেকে ১০ জন শিশু হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে। ফলে হাসপাতালে বেডের চরম সঙ্কট দেখা দিয়েছে। আলাদা ওয়ার্ড করেও পরিস্থিতি সামলানো যাচ্ছে না। অজানা জ্বরের দাপটে ফিরোজাবাদে স্কুল বন্ধ করে দিতে হয়েছে।

উত্তরপ্রদেশ সরকারের তরফে জানানো হয়েছে এই জ্বরের মোকাবিলায় সর্বশক্তি দিয়েই লড়ছেন চিকিৎসক, নার্স, চিকিৎসকর্মীরা। সতর্ক করা হয়েছে সমস্ত হাসপাতালকেই।  সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে খবর, ফিরোজাবাদের জেলাশাসক চন্দ্রবিজয় সিংহ ৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সরকারি-বেসরকারি সমস্ত স্কুলের প্রথম থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত ক্লাস বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন। উল্লেখ্য করোনা কাল কাটিয়ে কিছুদিন আগেই স্কুল চালু হয়েছে উত্তরপ্রদেশে।

- Advertisement -
Latest news
Related news