Tuesday, June 25, 2024

Kharagpur Robbery: খড়গপুরে ব্যবসায়ীর দোকান ও বাড়িতে ডাকাতি! ১৫মিনিটের অপারেশনে নগদ ও গহনা মিলিয়ে লুট ১৫ লক্ষাধিক

According to police and local sources, at least 15 lakh rupees worth of cash and jewelery were looted from a businessman in an adventurous robbery on Monday night just 5 km from Kharagpur city. Kharagpur Rural Police is investigating the incident. According to the police, in the initial account given by the businessman, we felt that all the property worth lakhs of rupees including cash and jewelery was looted. However, a local source said that the amount of looting will exceed 1.5 million. The incident took place at Benapur on Kharagpur Narayangarh State Road, 5 km from Kaushalya in Kharagpur town. It is learned that two persons entered Subal Das's shop at 10:15 pm on Monday in the face of closing the shop and asked for a mask. As soon as Subal Das returned to the place where the mask was kept, two persons entered the shop and lowered the shutter. He then showed the firearms and tied up Subal and his son. The two miscreants then fled with about 4 lakh rupees in cash and more than 10 gold ornaments of Subal's wife and daughter-in-law who were in a cupboard inside the house. The two also took their mobile phones with them while leaving.

- Advertisement -spot_imgspot_img
কি হয়েছিল? বলছেন সুবল দাসের ছেলে

নিজস্ব সংবাদদাতা: খড়গপুর শহর থেকে মাত্র ৫ কিলোমিটার দুরে সোমবার রাতে এক দুঃসাহসিক ডাকাতির ঘটনায় এক ব্যবসায়ীর নগদ ও গহনা মিলিয়ে অন্ততঃ ১৫ লক্ষ টাকা মূল্যের সামগ্রী লুট হয়েছে বলে পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে। ঘটনায় তদন্তে নেমেছে খড়গপুর গ্রামীণ থানার পুলিশ। পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে প্রাথমিকভাবে ওই ব্যবসায়ী যে হিসাব দিচ্ছেন তাতে আমাদের মনে হয়েছে সব মিলিয়ে নগদে ও গহনা মিলিয়ে লাখ দশেক টাকা মূল্যের সম্পত্তি লুট হয়েছে। যদিও স্থানীয় একটি সূত্র জানাচ্ছে লুট হওয়ার পরিমান ১৫লাখ ছাড়িয়ে যাবে।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

ঘটনাটি ঘটেছে খড়গপুর শহরের কৌশল্যা থেকে ৫ কিলোমিটার দূরত্বে খড়গপুর নারায়নগড় রাজ্য সড়কে বেনাপুরে। কৌশল্যার দিক থেকে বেনাপুরে ঢোকার ঠিক মুখেই মাত্র কয়েকবছর হল একটি তিনতলা বাড়ি নির্মাণ করেছিলেন সুবল দাস নামে ওই ব্যবসায়ী। যেখানে স্থানীয় ভাষায় মাছ আর সবজি ছাড়া সব রকমের সামগ্রীর খুচরো ও পাইকারি ব্যবসা শুরু করেছিলেন সুবল দাস। বাড়িরই একটা অংশে স্ত্রী, পুত্র এবং পুত্রবধূকে নিয়ে থাকতেন সুবল দাস। দোকানে একজন কর্মচারী ছিল।

জানা গেছে সোমবার দোকান ঠিক বন্ধ করার মুখে রাত ১০টা ১৫নাগাদ ৫ জন ব্যক্তি সুবল দাসের দোকানে প্রবেশ করে এবং মাস্ক ও স্যানিটাইজার দেওয়ার জন্য বলে। এক ব্যক্তি সুবলের ছেলেকে ডিটারজেন্ট চেয়ে তাকে নিয়ে দোকানের ভেতরের দিকে চলে যায়। সেখানে ওই ব্যক্তি সুবলের ছেলেকে বন্দুক দেখিয়ে আটকে রাখে। সুবল দাস মাস্ক রাখার জায়গার দিকে ফিরতেই দুই ব্যক্তি তাঁকে ঘিরে ফেলে এবং রিভলবার ঠেকায় তার বুকে। ২জন দোকানের ভেতরে ঢুকে সাটার নামিয়ে দেয়। সুবল প্রতিবাদ করতে গেলে বন্দুকের বাঁট দিয়ে মারাও হয় তাঁকে। এরপর আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে বেঁধে ফেলে সুবল এবং তাঁর ছেলেকে। তারপর ওই দুই দুষ্কৃতি ক্যাশ থেকে প্রায় ৪লক্ষ টাকা ও বাড়ির ভেতরে আলমারিতে থাকা সুবলের স্ত্রী ও পুত্রবধূর ১০ভরিরও বেশি সোনার গহনা নিয়ে পালায়। যাওয়ার সময় দু’জনের মোবাইল ফোনও নিয়ে যায়। তবে ভেতরে ২জন ঢুকলেও বাইরে আরও কয়েকজন দুষ্কৃতি ছিল বলে জানা গেছে।

রাতেই খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশ। রাত ২টা অবধি খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে দেখা হয় লুটের জায়গা। পরে পুলিশ একটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করে বারোবেটিয়ার কাছ থেকে। অন্য মোবাইলটি রিং হলেও সেটার খোঁজ পায়নি পুলিশ। পুলিশের অনুমান অন্য মোবাইলটিও রাস্তায় ফেলে গেছে দুষ্কৃতিরা। পুলিশ বেনাপুর রেল লেবেল ক্রসিং ও বারোবেটিয়া সংলগ্ন একটি মন্দিরের সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে দুষ্কৃতিদের গতিবিধি ট্র্যাক করার চেষ্টা করছে। তবে রাস্তায় পাওয়া একটি মোবাইল ফোন থেকে পুলিশের অনুমান লুটের পর খড়গপুর শহরের দিকেই ঢুকেছে দুষ্কৃতিরা।

- Advertisement -
Latest news
Related news