Monday, June 17, 2024

kharagpur : পুলিশ স্ত্রীকে মেদিনীপুরের হোটেলে নগ্ন অবস্থায় পুলিশ সহকর্মীর সাথে হাতে নাতে ধরলেন খড়গপুরের সেনা আধিকারিক স্বামী! মধুচক্র থেকে পুলিশের জালে গৃহবধূ থেকে কলেজ পড়ুয়া

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা : স্বামী আর্মি অফিসার আর স্ত্রী পুলিশের মহিলা কনস্টেবল। স্বামী ভিনরাজ্যে থাকে আর সেই সুযোগে স্ত্রীর ঘনিষ্ঠতা পুলিশকর্মীর সাথে। সেই ঘনিষ্ঠতা এতটাই যে স্বামী ঘরে ফিরলেও স্ত্রী পাত্তাই দেয়না তাঁকে। ডিউটির নাম করে হোটেলে গিয়ে রাত কাটায় প্রেমিকের সাথেই। সন্দেহ হওয়ায় স্ত্রী পিছু ধাওয়া করে হোটেলের একটি রুম থেকে নগ্ন অবস্থায় হাতে নাতে পাকড়াও করল খড়গপুরের সেই আর্মি অফিসার। শুক্রবার খড়গপুর থেকে নিজের গাড়ি নিয়ে মেদিনীপুর শহরের একটি লজ থেকে দুজনকে হাতেনাতে ধরার সময় সামনে উঠে এলো আরও এক কুকীর্তি। লকডাউনের বাজারে দিব্যি মধুচক্র চালিয়ে যাচ্ছে মেদিনীপুর শহরের ডাকবাংলো রোডের ওই লজটি। ধরা পড়ল লজ মালিক সমেত আরও বেশ কয়েকজন যুবক যুবতী। গৃহবধূ থেকে কলেজ পড়ুয়া কে নেই সেই তালিকায়?

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

জানা গেছে খড়গপুর শহরের ইন্দা আনন্দনগরের বাসিন্দা ওই স্বামী ভদ্রলোক ইন্ডিয়ান আর্মির সেন্ট্রাল ডিফেন্সে কর্মরত।
কয়েকদিন আগেই ছুটিতে বাড়ি ফিরেছেন তিনি কিন্তু রাজ্য পুলিশের মহিলা কনস্টেবল স্ত্রী তাঁকে এড়িয়ে এড়িয়ে চলে। মহিলা পুলিশ লাইনে কর্মরত তাই প্রায়ই ডিউটির নাম করে মেদিনীপুরেই পড়ে থাকে। এদিকে দীর্ঘদিন পরে বাড়ি ফিরে স্ত্রীর অস্বাভাবিক আচরনে সন্দেহ বাড়ছিল
আর্মি অফিসারের। শুক্রবার স্ত্রী কাজে বেরিয়ে গেলে পিছু পিছু যায় আর্মি অফিসারও। মেদিনীপুরে প্রবেশ করেই চক্ষুচড়ক গাছ আর্মি অফিসারের। পুলিশ লাইনের বদলে স্ত্রী ঢুকছে ডাকবাংলো রোডের এভারগ্রীন লজে! যেখানে আগে থেকেই হাজির প্রেমিক পুলিশ।

দুজনেই হোটেলের একটি রুমে ঢুকে যাওয়ার পরে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করার পর সোজা ম্যানেজারের কাছে হাজির হয়ে নিজের পরিচয় দিয়ে দরজায় লাথি মারতেই খুলে যায় দরজা। তখন দেখতে পান তাঁর পুলিশ স্ত্রী ও পুলিশ প্রেমিকা দুজনেই নগ্ন! সেই দৃশ্য দেখার পর ঠিক থাকতে পারেননি আর্মি অফিসার স্বামী। স্ত্রীর প্রেমিককে বেধড়ক মারধর শুরু করেন। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয় এলাকায়। কোনোক্রমে মহিলার স্বামীর হাত থেকে মহিলার প্রেমিককে উদ্ধার করে এলাকার মানুষ।

এরপরই খবর চলে যায় মেদিনীপুর কোতয়ালি থানায়, ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে মহিলার প্রেমিক সহ লজে থাকা আরো বেশকিছু যুবক যুবতি এবং লজ মালিককে আটক করে। সুযোগ বুঝে পালাতে সক্ষম হয় আর্মি অফিসারের স্ত্রী। অবশ্য তাঁকেও খুঁজছে পুলিশ। আর তারপর একের পর এক রুমে তল্লাশি চালিয়ে ধরা পড়েন জোড়ায় জোড়ায় সাজানো স্বামী-স্ত্রী। কেউ বাড়ির বউ তো কেউ কলেজ পড়ুয়া। লকডাউনে হোটেলের খদ্দের না থাকলেও মধুচক্রের আসর বসিয়ে চলছে রমরমা দেহ ব্যবসা।

- Advertisement -
Latest news
Related news