Tuesday, April 16, 2024

Medinipur: ৪ মাসের শিশু কে বিক্রি করতে চায় বাবা! আছড়ে মারতে চাইল মা, পশ্চিম মেদিনীপুরে দারিদ্র্যের নিষ্ঠুর কথন

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: নিজের সন্তান কে বিক্রী করতে চায় বাবা! কিন্তু বাধা মা। ছেলে কে নিয়ে এই টানাপোড়েনের মাঝেই শিশুটিকে আছড়ে মেরে ফেলতে চাইল স্বয়ং মা! পশ্চিম মেদিনীপুরের বেলদা থানার এই ঘটনায় হতভম্ব এলাকার বাসিন্দারা। পরে দুজনকেই পুলিশের হাতে তুলে দেয় স্থানীয় জনতা। পুলিশ দুজনকেই আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। যদিও ঘটনায় এখনও অবধি কোনও অভিযোগ হয়নি। বুধবার ঘটনাটি ঘটেছে খাকুড়দাতে।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

খাকুড়দার এই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন ঘটনাটি বেলা ১০টা নাগাদ। বেলদা-কাঁথি রাজ্য সড়কের কাছে খাকুড়দার লোকালয় থেকে সামান্য কিছুটা দূরে এক দম্পত্তিকে তাঁরা কলহ করতে দেখে। তাঁদের কাছে একটি বস্তা ছিল, যে বস্তাটি রাস্তায় আছাড় দিতে দেখা যায় মহিলা কে। এরপর ওই মহিলা বস্তাটিতে আগুন লাগিয়ে দেয়। বস্তার মধ্যে থেকে শিশুর কান্না শুনে চমকে যান স্থানীয়রা। তাঁরা দেখতে পান বস্তার মধ্যে একটি দুধের শিশু। দুই দম্পত্তি তখনও ঝগড়া চালিয়ে যাচ্ছে। স্থানীয় মানুষ তাঁদের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করলেও তাঁরা জনতার সঙ্গে কথা বলতে চাননি। এরপরই জনতা পুলিশকে ফোন করেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে হাজির হয় এবং দুই দম্পত্তি কে আটক করে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে ওই দম্পতি হলেন অজয় সিং ও সুস্মিতা সিং। তাঁরা ঘটনাস্থল থেকে প্রায় ১০ কিলোমিটার দূরে বেলদা এলাকার বাসিন্দা। শিশুপুত্রটি তাঁদের ই। সুস্মিতা জানিয়েছে ওই শিশুপুত্র টিকে কারও কাছে বিক্রী করে দিতে চাইছিল কিন্তু সুস্মিতা তা চাইছিল না। এই নিয়ে বিরোধ বাধে দুজনের মধ্যে। অজয় জানিয়েছে, তাঁরা অত্যন্ত গরিব। প্লাস্টিক বোতল কুড়িয়ে জীবিকা অর্জন করেন তাঁরা এবং সেই কারণেই তাঁরা বস্তা নিয়ে খাকুড়দা এলাকায়। স্বামী-স্ত্রী দুজনেই সকাল সকাল চোলাই খেয়েছিল আর তারপরই ফের ছেলে কে নিয়ে বিরোধ বাধে।

এরপরই বেলদা থানার পুলিশ ওই দুই জন দম্পতিকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে।আর এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। মনে করা হচ্ছে দারিদ্রের জ্বালাতেই এই অশান্তি। বোতল কুড়িয়ে জীবন ধারণ করা মুশকিল হয়ে পড়েছিল। তাই নিজের সন্তান কে বিক্রী করতে চাইছিল বাবা অজয় কিন্তু নিজের সন্তানকে বিক্রী করতে চাইছিলেন মা। আর তাই নিয়েই দুই মদ্যপ দম্পতির বিরোধ শুরু হয়। শিশুটিকে আছড়ে মারতে চান মা। শেষ খবর পাওয়া গেছে ওই দম্পতিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শিশুটি বেলদা গ্রামীন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

 

- Advertisement -
Latest news
Related news