Monday, June 17, 2024

Mystery Fever: ফের অজানা জ্বরে শিশু মৃত্যু মালদায়, মৃত্যু শিলিগুড়িতেও! ৪জেলায় মৃত্যু বেড়ে দাঁড়ালো ১৩, দক্ষিনেও শিশুদের অজানা জ্বর

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: আবারও এক শিশু মৃত্যুর ঘটনা ঘটল মালদহ মেডিক্যাল কলেজে। শনিবার গভীর রাতে ওই শিশুর মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন মেডিক্যাল কলেজ কর্তৃপক্ষ। কর্তৃপক্ষ আরও জানিয়েছেন, মানিকচকের ওই শিশুটিকে একেবারে শেষ মুহূর্তে আনা হয়েছিল ফলে চিকিৎসার তেমন সুযোগই মেলেনি। ওই শিশুটির বয়স হয়েছিল মাত্র ৬মাস। জ্বর এবং শ্বাসকষ্ট নিয়ে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভরতি ছিল সে।
এই নিয়ে ৫ দিনে মোট ৭টি শিশুর মৃত্যু হল।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

এদিনই আরও এক শিশু মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে শিলিগুড়ি উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ থেকে। জানা গেছে  আরব মুণ্ডা নামে ২ মাসের ওই শিশুর বাড়ি বানারহাটে। জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মেডিক্যাল কলেজে চিকিৎসাধীন ছিল সে। মেডিক্যাল কর্তাদের দাবি, সেপসিসের জেরেই জ্বর এসেছিল শিশুটির। আর তার জেরেই মৃত্যু। এদিন মালদা মেডিক্যাল কলেজে আরও এক শিশুর মৃত্যুর ঘটেছে বলে দাবি করা হয়েছে একটি সূত্রে যদিও এখন এই মৃত্যুর কথা স্বীকার করেননি মেডিক্যাল কলেজ কর্তৃপক্ষ।

এর আগে জলপাইগুড়িতে অজানা জ্বরে ৪ শিশুর মৃত্যু হয়েছিল। এখনও অবধি সব মিলিয়ে উত্তরবঙ্গের চারটি জেলায় মোট ১৩ শিশুর মৃত্যুর ঘটনা ঘটল। ফলে উত্তরবঙ্গে গত কয়েকদিনে অজানা জ্বরে শিশু মৃত্যুর ঘটনা উদ্বেগ ছড়িয়েছে নবজাতক পরিবার গুলিতে। এই পরিস্থিতিতে শিশুদের চিকিৎসায় বিশেষ নজর মালদহ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের। জ্বর নিয়ে ভরতি হতে আসা কোনও শিশুকে যাতে হাসপাতাল থেকে ফিরে যেতে না হয় সেদিকে নজর দেওয়া হচ্ছে। তাই ইতিমধ্যেই বাড়ানো হচ্ছে শয্যা সংখ্যা। এছাড়া শিশু বিভাগের চিকিৎসকদের ছুটিও বাতিল করা হয়েছে।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, আরও ৮টি শিশুর অবস্থা আশঙ্কাজনক। জানা যাচ্ছে, জ্বরের পাশাপাশি তীব্র শ্বাসকষ্ট দেখা দিচ্ছে শিশুদের মধ্যে। মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে শিশুদের জন্য বেড রয়েছে ১২০টি। অথচ গড়ে দৈনিক ৫০-৬০টি শিশু ভর্তি হচ্ছে। ফলে একই বেডে একাধিক শিশুর চিকিৎসা চলছে। বেশিরভাগ শিশুই নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত বলে চিকিৎসকরা
বলছেন। আর কিছুক্ষেত্রে দেখা দিচ্ছে এমআইএস-এর লক্ষ্মণ। এক্ষেত্রে যেটা সবচেয়ে বেশি জরুরি, সেটা হল তাদেরকে নতুন করে করোনা টেস্ট করা হচ্ছে।
উত্তরবঙ্গে পাশাপাশি দক্ষিণবঙ্গেও বাড়ছে শিশুদের জ্বরের প্রকোপ। অসুস্থ বহু। মুর্শিদাবাদ, পুরুলিয়া, পূর্বমেদিনীপুরে বহু শিশুই ভুগছে জ্বরে। কারও কারও রয়েছে শ্বাসকষ্টও। ক্রমশই উদ্বেগ বাড়ছে অভিভাবকদের। এই পরিস্থিতিতে নির্দেশিকাও জারি করেছে রাজ্য স্বাস্থ্যদপ্তর। শিশুদের জ্বর, ডায়েরিয়া, শ্বাসকষ্টের মতো উপসর্গ দেখা দিলে অভিভাবকদের সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।
চিকিৎসকদের পরামর্শ সারাদিনে ৪-৫বার পালস অক্সিমিটার দিয়ে রক্তে অক্সিজেনের মাত্রা খতিয়ে দেখার কথা বলা হয়েছে। শিশু সারাদিনে কতবার প্রস্রাব করছে, সেদিকে খেয়ার রাখতে হবে অভিভাবকদের। উপসর্গ বাড়াবাড়ি আকার নিলে দেরি না করে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। প্রয়োজনে তাকে ভর্তি করতে হবে হাসপাতালে। তবে এখনও অবধি কোনও শিশুর শরীরেই করোনার জীবানু পাওয়া যায়নি।
- Advertisement -
Latest news
Related news