Monday, May 20, 2024

Weather kharagpur Midnapur: ঘূর্ণাবর্তের ওপরে আরেক ঘূর্ণাবর্ত! ভাসতে পারে খড়গপুর মেদিনীপুর ঝাড়গ্রাম, ভারী বৃষ্টি উত্তরবঙ্গে

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: এ যেন একে মা মনসা তায় ধুনোর গন্ধ। গত কয়েকদিন মৌসুমী অক্ষরেখা ক্রমশ দক্ষিণে দিকে সরছে যাতে ভর করে প্রচুর জলীয়বাষ্প প্রবেশ করছে বাংলার দক্ষিণের জেলাগুলিতে। অন্যদিকে বিহার থেকে ওড়িশা পর্যন্ত রয়েছে একটি অক্ষরেখার প্রভাবে বাংলার পশ্চিমের জেলাগুলি রয়েছে বৃষ্টি বলয়ের মধ্যেই। আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, ইতিমধ্যেই দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তামিলনাড়ু উপকূলে একটি ঘূর্ণাবর্ত রয়েছে। গোদের ওপর বিষফোঁড়ার মত আরও একটি তৈরি হতে যাওয়া ঘূর্ণাবর্তের প্রভাবে ভাসতে পারে খড়গপুর মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রাম।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

বুধবার ও বৃহস্পতিবার টানা বৃষ্টি হয়েছে দুই শহরে কিন্তু শুক্রবার সকালের আলো ঝলমলে আকাশ মনে করিয়ে দিয়েছে শরতের আকাশের কথা। কারও কারও মতে শুক্রবারের সকাল যেন পুজোর গন্ধ বয়ে এনেছে। কিন্তু বেলা ১১টার পরই ফের আকাশে কালো মেঘের আনাগোনা ঘটতে শুরু করেছে। রোদ হয়েছে অনেকটাই ম্রিয়মান। বাতাস ভারী হচ্ছে চড়া আর্দ্রতায়। অস্বাভাবিক ভ্যাপসা গরম আবার ফিরতে শুরু করেছে। কারন হিসাবে আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, শুক্রবার নাগাদ নতুন করে একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হবে পশ্চিম মধ্য ও উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর এলাকায়। ফলে খড়গপুর,মেদিনীপুর,ঝাড়গ্রাম এলাকায় হালকা থেকে মাঝারি এবং মুর্শিদাবাদ ও বীরভূমে ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে। অবস্থার অবনতি না হলে শনিবার অবধি এই বৃষ্টি চলতে পারে।

খড়গপুর ও মেদিনীপুরে এই সপ্তাহের সর্বাধিক গরম অনুভূত হয়েছে ২৩তারিখ, সোমবার। ওইদিন দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫.৬৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া বৃষ্টির ফলে তাপমান কিছুটা কমে বৃহস্পতিবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা দাঁড়িয়েছিল ৩১.৭৬ ডিগ্রিতে। মঙ্গলবার জেলায় (মেদিনীপুর শহর) বৃষ্টি হয়েছিল ১১.৫৬ মিলিমিটার, বুধবারও প্রায় তাই। বৃহস্পতিবার দুপুর এবং সন্ধ্যা থেকে খড়গপুরে ১২মিলিমিটারের কাছাকাছি বৃষ্টি হয়েছে।

শুক্রবার সকাল থেকে যদিও বৃষ্টি হয়নি তবে আকাশ ক্রমশ ভারী হয়ে আসছে যা গত কয়েকদিনের লক্ষণ, বেলা গড়ানোর পর বৃষ্টি।অবশ্য শুধুমাত্র খড়গপুর মেদিনীপুর নয়, মেঘলা আকাশ পরিলক্ষিত হয়েছে দক্ষিণবঙ্গে জুড়েই।দিনভর মূলত মেঘলা আকাশের সাথে দুই শহরের বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯৯.৮% এবং সর্বনিম্ন ৮২%। সব মিলিয়ে গড় আপেক্ষিক আর্দ্রতা ৯৪.৯৮% যা বৃষ্টি হওয়ার পক্ষে যথেষ্ট অনুকূল।

পাশাপাশি উত্তরবঙ্গে অতিভারী বৃষ্টির কমলা সর্তকতা জারি করা হয়েছে। ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সর্তকতা জলপাইগুড়ি আলিপুরদুয়ার ও কোচবিহারে দার্জিলিং এবং কালিম্পংয়ে। মালদা উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুরে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস।শনিবারে বৃষ্টির পরিমাণ কমবে। দু এক পশলা ভারী বৃষ্টির সর্তকতা আলিপুরদুয়ার, কোচবিহারে, দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি,কালিম্পং জেলায়। রবিবার অবশ্য দুই বঙ্গেই আকাশ পরিষ্কার হয়ে যেতে পারে।

- Advertisement -
Latest news
Related news