Sunday, July 21, 2024

IIT Kharagpur: ভয় কাটছে পড়ুয়াদের, বন্ধ হোস্টেল ছাড়ার হিড়িক! নতুন কোয়ারেন্টাইন সেন্টার প্রস্তুত করছে আইআইটি খড়গপুর

IIT Kharagpur students are not scared now. The rush to leave the hostel has stopped. Because many of the students who were in quarantine at the beginning are returning to their own hostel free of corona. Almost everyone is saying that nothing was known, there was not even the slightest discomfort. It is learned that about 250 students have been infected so far and all the early victims have recovered and returned to their rooms in the hostel. As a result, the fear that was among the students at the beginning that many had left the hostel has now subsided. There is no rush to leave the hostel. Another quarantine center has been opened at Madan Mohan Malviya Hostel to deal with the situation. New victims are being sent to the 250-bed quarantine center. If necessary, 300 beds have been provided there. The second quarantine center after Sir Ashutosh Mukherjee Hostel was opened at Visvesvaraya Guest House.

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: করোনা ভয় কাটছে আইআইটি খড়গপুর (IIT Kharagpur) পড়ুয়াদের। থেমে গেছে হোস্টেল ছাড়ার হিড়িক। কারন প্রথম দিকে কোয়ারেন্টাইনে থাকা পড়ুয়াদের অনেকেই করোনা মুক্ত হয়ে ফিরছেন নিজের নিজের হোস্টেলে। প্রায় সব্বাই জানাচ্ছেন কোনও কিছুই মালুম হয়নি, ছিলনা নূন্যতম অস্বস্তিটুকুও। জানা গেছে এ পর্যন্ত প্রায় ২৫০ পড়ুয়া আক্রান্ত হয়েছেন এবং প্রথম দিকের আক্রান্তরা সব্বাই সুস্থ হয়ে হোস্টেলে নিজের রুমে ফিরে গিয়েছেন। ফলে শুরুতে যে ভয় পড়ুয়াদের মধ্যে ছিল যে কারনে অনেকেই হোস্টেল ছেড়েছিলেন তা এখন স্তিমিত। হোস্টেল ছাড়ার হিড়িক আর নেই।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

আইআইটি খড়গপুর কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, র‍্যান্ডাম টেস্ট করানোর কারনেই ক্যাম্পাসে পজিটিভ সংখ্যা বেশি। এই টেস্ট চালিয়ে যাওয়া হবে বিশেষ করে যাঁরা কোনও কারণে অসুস্থতা নিয়ে চিকিৎসার জন্য আসবেন। পাশাপাশি নতুন কেউ ক্যাম্পাসে এলে তাঁদেরও টেস্ট করানো হবে। জানা গেছে শুধু পড়ুয়া নয়, আক্রান্ত হয়েছেন বহু কর্মচারী এবং প্রায় ১ডজন অধ্যাপকও। এঁদের বেশিরভাগকেই বাড়িতে থাকার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে তবে চাইলে কেউ কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে থাকতে পারেন।

পরিস্থিতি মোকাবিলায় মদন মোহন মালব্য ছাত্রাবাসে আরও একটি কোয়ারেন্টাইন সেন্টার খোলা হয়েছে। ২৫০ শয্যার ওই কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে নতুন আক্রান্তদের পাঠানো হচ্ছে। প্রয়োজনে ওখানে ৩০০ শয্যা পাতার ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে। স্যার আশুতোষ মুখার্জী হোস্টেলের পর দ্বিতীয় কোয়ারেন্টাইন সেন্টার খোলা হয়েছিল বিশ্বেসরাইয়া অতিথি নিবাসে। সেই হিসাবে মদন মোহন মালব্য আইআইটি খড়গপুরের তৃতীয় কোয়ারেন্টাইন সেন্টার। বিশ্বেসরাইয়া অতিথি নিবাসে প্রায় ১২০টি শয্যার ব্যবস্থা রয়েছে। ওখানে পড়ুয়াদের বাদ দিয়ে অন্য আক্রান্তদের রাখার পরিকল্পনা করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

আইআইটি খড়গপুরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ক্যাম্পাসের পরিস্থিতি বর্তমানে খুবই স্বাভাবিক। শুধু পড়ুয়া নয় ক্যাম্পাসের অন্যান্য আবাসিকদের মধ্যেও আর ভয়ভীতির পরিবেশ নেই। অনলাইন পাঠক্রম চলছে। যে পড়ুয়ারা চলে গেছিল তারা আবার ফিরে আসতে পারে। গোটা ক্যাম্পাস জুড়ে কোভিড বিধি জোরালো ভাবেই বলবৎ রয়েছে। তবে সেই অর্থে কোনও কঠিন বিধি নিষেধ নেই।

- Advertisement -
Latest news
Related news