Sunday, July 21, 2024

Garbeta: পশ্চিম মেদিনীপুরে তৃনমূলী মাতব্বরদের দাদাগিরি! ভূমিহীন পরিবারকে উচ্ছেদ করে বুলডেজারে গুঁড়িয়ে দেওয়া হল আবাস যোজনার বাড়ি

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: গ্রাম বাংলায় মাতব্বরদের দাপট কী ভাবে বেড়েছে তারই প্রমাণ রইল পশ্চিম মেদিনীপুরের গড়বেতা থানার একটি গ্রাম। একটি হত দরিদ্র পরিবারকে উচ্ছেদের পর বুলডেজার দিয়ে ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হল তাঁদের আবাস যোজনায় পাওয়া বাড়িটিও। তৃণমূলী মাতব্বরদের জরিমানা ও মারের ভয়ে বিষয়টি অন্যায় জেনেও মুখ খুলতে পারেননি স্থানীয় গ্রামবাসীরা। উৎখাত হওয়া পরিবারটিকে বৃদ্ধ ও শিশুদের নিয়ে দিন কাটাতে হচ্ছে তারপোলিনের তলায়। গড়বেতা থানার কাঁঠালডিহা গ্রামের ওই পরিবারটি জানিয়েছে তৃনমূলী মাতব্বরদের খুনের হুমকির মুখে এতটাই সন্ত্রস্ত যে পুলিশ প্রসাশনের দপ্তরেও যেতে পারেনি।

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

ঘটনার তীব্র নিন্দা করে সিপিএম পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা সম্পাদক সুশান্ত ঘোষ সাংবাদিকদের বলেন, বাংলার গ্রামে গ্রামে কী ধরনের তালিবানি শাসন কায়েম হয়েছে এই ঘটনা তারই প্রমাণ। প্রসাশনের কাছে দাবী করবো সরকারের বরাদ্দ আবাস যোজনার থেকে উৎখাত করার পর সেই ঘর জেসিপি দিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়ার মত ঘৃন্য অপরাধীদের কঠিন শাস্তি দেওয়া হোক। এদের বিরুদ্ধে আইনানুসারে পদক্ষেপ নেওয়া উচিত প্রসাশনের।

প্রকাশ্যে মুখ খুলতে না চাইলেও স্থানীয় গ্রামবাসীরা বলেছেন গত ১০৫ বছর ধরে সরকারের ওই খাস জায়গায় বসবাস করছেন তফেজ্জুল গায়েন (কাদু) ও তার পরিবার। এই শত বছরে পরিবারের বিভিন্ন শাখা হয়েছে। নিজেদের মত করে ভাগ বাঁটোয়ারা করে বাড়ি বানিয়ে বসবাস করেন তাঁরা। সেই ভাগ বাঁটোয়ারা মোতাবেকই সরকারের তরফে সাত বছর আগে তফেজ্জুল গায়েনের নামে আবাস যোজনায় ববাড়ি বরাদ্দ করে স্থানীয় প্রশাসন। তখন সরকারি বরাদ্দ ছিল ৭৫ হাজার টাকা। দিনমজুর তফেজ্জুল তার আয় থেকে সঞ্চয় ও ধারদেনা করে দু’কামরার একটা বাড়ি তৈরি করে। এই সময়ে কেউ আপত্তিও করেনি। কিন্তু সম্প্রতি তার একজন জ্ঞাতি জায়গাটা তার বলে দাবি করে এবং বাড়ি ছাড়তে বলে। অপেক্ষাকৃত আর্থিক অবস্থা ভালো ওই জ্ঞাতির পাশে এসে দাঁড়ায় স্থানীয় তৃণমূলী মাতব্বরের দল। মোটা অংকের টাকা দাবি করা হয় তফেজ্জুল গায়েনের কাছে।

তফেজ্জুল গায়েনের পক্ষে টাকা দেওয়া সম্ভব হয়নি। তিনি মাতব্বরদের হাতে পায়ে ধরেন এমন কী স্থানীয় তৃনমূল পঞ্চায়েত সদস্যর দ্বারস্থ হন। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয়নি। মাতব্বরের দল এবার একটি নতুন কায়দা নেয়। তফেজ্জুল গায়েনের স্ত্রী চরিত্রহীনা এই ফতোয়া দিয়ে গ্রাম ছাড়তে বলা হয় তাদের নচেৎ পিটিয়ে মারার হুমকি দেওয়া হয়। সেই হুমকির মুখে প্যারালাইসিস অসুখে আক্রান্ত বৃদ্ধ বাবা গফ্ফর খান, সহ বৃদ্ধ মা, স্ত্রী ও দুই নাবালক সন্তানকে নিয়ে পাশের গ্রাম জামডিহায় এই শীতের মধ্যেই তার্পোলিন টাঙিয়ে আশ্রয় নেয় পরিবারটি।  বুধবার সেই বিতাড়ন পর্ব শেষ করার পরই ঘরের চিহ্ন মুছে দিতে জেসিপি মেসিন দিয়ে ভেঙে গুড়িয়ে দেওয়া হয়‌ আবাস যোজনার ঘরটি। মজার ব্যাপার এই যে এই কড়ষা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় ৯ কোটি টাকার গাছ চুরির ঘটনায় তৃণমূল গ্রাম প্রধান এখন জেল খাটছেন । অভিযুক্ত একাধিক তৃনমূল নেতাও।

- Advertisement -
Latest news
Related news