Sunday, July 14, 2024

Bengal Poll: একই দিনে ৩ মামলা শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে! মৃত দ্বিজেন বন্দ্যোপাধ্যায়কে দিয়ে ভোট দিয়েও শান্তি পাচ্ছেনা তৃনমূল, কটাক্ষ বিরোধী নেতার

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: একই দিনে তিন তিনটি মামলা দায়ের হল বিজেপি নেতা তথা বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে। আর প্রতিটি মামলাই দায়ের হয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কাঁথি থানায়। জানা গেছে পুর নির্বাচনে প্রচারে নেমে কাঁথির বিভিন্ন ওয়ার্ডে তিনি ভোটারদের হুমকি দিয়েছেন যে, বিজেপি প্রার্থীদের ভোট না দিলে পরিণাম খারাপ হবে। শুধু শুভেন্দু অধিকারী একাই নন তারই সঙ্গে তাঁর নিরাপত্তারক্ষীরাও ভোটারদের এমন হুমকি দিচ্ছেন বলেও অভিযোগ করা হয়েছে থানায়। গোটা ঘটনাকেই তৃনমূলের ভোটে জেতার মরিয়া চেষ্টা বলে কটাক্ষ করে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী বলেন, ‘ মৃত সঙ্গীত শিল্পীকে ভোট দেওয়া করিয়েছে তৃনমূল। তারপরও শান্তি পাচ্ছেনা ওরা।’

আরো খবর আপডেট মোবাইলে পেতে ক্লিক করুন এখানে

উল্লেখ্য শুক্রবার কাঁথি পুরসভার ৫, ৬ ও ১০ নাম্বার ওয়ার্ডের ৩ ব্যক্তি কাঁথি থানায় অভিযোগ করেছেন যে ওই সব এলাকায় প্রচারে গিয়ে শুভেন্দু অধিকারী ও তাঁর নিরাপত্তা রক্ষীরা সাধারণ ভোটারদের এমনই হুমকি দিয়েছেন যে বিজেপি প্রার্থীদের ভোট না দিলে দেখে নেওয়া হবে ভোটারদের। কাঁথি থানায় এরকম অভিযোগ দায়ের হওয়ার পরই শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে হিংসায় ইন্ধন দেওয়ার অভিযোগ তুলে পৃথক ৩ টি মামলা রুজু করেছে পুলিশ। এই মামলাগুলি দায়ের হয়েছে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৪, ৩৪১, ৫০৬ ও ৫০৯ ধারাতে। এরমধ্যে একটি ধারা অ-জামিনযোগ্য অপরাধ।

কাঁথির মহকুমা পুলিশ আধিকারিক সোমনাথ সাহা বলেছেন, ৩ টি অভিযোগের ভিত্তিতে ৩ টি মামলা দায়ের হয়েছে এবং সেগুলির তদন্ত শুরু হয়েছে।
পুলিশ সূত্রে খবর, শনিবার মামলা সংক্রান্ত নোটিশ পাঠানো হবে শুভেন্দু অধিকারীকে। অভিযোগকারীরা অভিযোগ করেছেন যে গত বৃহস্পতিবার দলীয় প্রার্থীদের সমর্থনে প্রচারে বেরিয়ে ভোটারদের এমনই হুমকি দিয়েছিলেন শুভেন্দুর। যদিও ওইদিন প্রচারে নেমে শুভেন্দু অধিকারীকেও তৃনমূলকর্মীদের বাধার মুখে পড়তে হয়েছিল। শুক্রবারও কাঁথি পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডে প্রচুর সংখ্যক তৃণমূল কর্মী-সমর্থকরা শুভেন্দু অধিকারীকে ঘিরে ধরেন এবং তাঁর উদ্দেশে গো ব্যাক স্লোগান দিতে থাকেন।

কাঁথির সাংগঠনিক জেলা তৃণমূলের সভাপতি তরুণ মাইতি বলেছেন, ‘ মানুষ ওঁদের প্রত্যাখ্যান করেছেন। তৃণমূলে থাকার সময় তাঁদের চলনবলন সবই আলাদা ছিল। বিজেপি-তে গিয়ে এখন নিচে নামতে হচ্ছে। মানুষের কাছে যেতে হচ্ছে। বাড়ি বাড়ি আবেদন জানাতে গিয়েও সমর্থন আদায় করতে পারছেন না। সে কারণে হতাশাগ্রস্ত হয়ে মেজাজ হারাচ্ছেন। আর এমন আচরণ করছেন।’ হুমকি ও মামলার ব্যাপারে অবশ্য কোনও মন্তব্য করতে চাননি শুভেন্দু। তবে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি তৃণমূলকে। বলেছেন, ‘তৃণমূলকে মানুষই বহিষ্কার করেছে। ওই জন্য টিপ দিয়ে ভোট দিতে হয়েছে বিধাননগরে। ওই জন্য দ্বিজেন মুখোপাধ্যায়কে স্বর্গ থেকে নামাতে হয়েছে। লজ্জা থাকা উচিত।’ অবশ্য বহু আগের শীর্ষ আদালতের এক রায় অনুযায়ী বিরোধী দলনেতাকে গ্রেফতার করতে পারবেনা পুলিশ। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে হলেও পুলিশকে তাঁরই দেওয়া সময় অনুযায়ী জিজ্ঞাসাবাদ করতে হবে।

- Advertisement -
Latest news
Related news