Sunday, December 10, 2023

IIT Kharagpur : ২২ মাস পরে ফের ছন্দে ফিরছে আইআইটি খড়গপুর! একসাথে আসছে সাড়ে তিনহাজার পড়ুয়া, ক্যাম্পাসে ঢুকেই যেতে হবে কোয়ারেন্টাইনে

IIT Kharagpur is going to return to the rhythm after cutting the memory with the misfortune of Corona. This is the first time in the last 22 months that about three and a half thousand students are entering the campus together. About 5,000 students left campus during the March 2020 lockdown. Then step by step some more students leave the campus. Out of a total of 9,500 students, only a few hundred remained. An official of IIT Kharagpur said that the number of B.Tech students in the second year is higher this time. They have been taking online classes at home for so long since they were admitted. This time they will do the class directly. Arrangements have been made for them to stay and take classes in accordance with the Kovid rules. After entering the campus, they will first go to BC Roy Technology Hospital with RTP / PCR report. Once the doctor examines them and gives them clearance, they will go to the hostel room and stay in quarantine for 3 days. Mess staff will come to their rooms with food. Then they will get clearance to do the class.

- Advertisement -spot_imgspot_img

নিজস্ব সংবাদদাতা: করোনার দুর্বিসহ স্মৃতি কাটিয়ে ফের ছন্দে ফিরতে চলেছে আইআইটি খড়গপুর (IIT Kharagpur). গত ২২মাস পর এই প্রথম একসাথে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করছেন প্রায় সাড়ে ৩হাজার পড়ুয়া। ২০২০ মার্চ মাসে লকডাউনের সময় প্রায় সাড়ে ৫হাজার পড়ুয়া ক্যাম্পাস ছেড়ে ছিল। এরপর ধাপে ধাপে আরও কিছু পড়ুয়া ক্যাম্পাস ছেড়ে দেয়। মোট সাড়ে ৯হাজার পড়ুয়ার মধ্যে থেকে যান মাত্র কয়েকশ পড়ুয়া। এরপর ওই বছর জুন মাসে বন্ধ করে দেওয়া হয় মেস। ফের পড়ুয়ারা ক্যাম্পাসে ফিরতে শুরু করায় সব মেস চালু করার কথা ঘোষণা করেছে আইআইটি (IIT Kharagpur )কর্তৃপক্ষ। আইআইটি খড়গপুর সূত্রে জানা গিয়েছে ২৬-৩০ডিসেম্বরের মধ্যে ৩৪০০ পড়ুয়া ক্যাম্পাসে ঢুকবে। যারমধ্যে ২৭০০ পড়ুয়া একেবারেই নতুন যাঁরা এই প্রথম ক্যাম্পাসের মুখ দেখবেন। এছাড়াও ৩০০ স্নাতকোত্তর ও ৩৫০ জন রিসার্চ স্কলার বা গবেষক পড়ুয়া রয়েছেন।

আইআইটি খড়গপুরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, মূলত দ্বিতীয় বর্ষের বি.টেক পড়ুয়াদের সংখ্যাটাই এবার বেশি। এরা ভর্তি হওয়ার পর থেকেই এতদিন ঘরে বসেই অনলাইন ক্লাস করেছেন। এবার সরাসরি ক্লাস করবেন এঁরা। কোভিড বিধি মেনেই এঁদের থাকার ও ক্লাস করার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ক্যাম্পাসে প্রবেশের পরেই আরটিপিসিআর (RT/PCR) রিপোর্ট নিয়ে এরা প্রথমে যাবে BC Roy Technology হাসপাতালে। সেখানে চিকিৎসক তাঁদের পরীক্ষা করে ছাড়পত্র দিলেই হোস্টেলের রুমে যাবেন এবং ৩দিনের জন্য নিভৃতবাস (Quarantine) থাকবেন। মেসের কর্মচারীরাই তাঁদের রুমে রুমে গিয়ে খাবার দিয়ে আসবে। এরপর তাঁরা ক্লাস করার ছাড়পত্র পাবে।

উল্লেখ্য লকডাউন প্রত্যহৃত হওয়ার পর কয়েকটি ধাপে ফেরানো হয়েছে কয়েক হাজার পড়ুয়াকে। এঁদের মধ্যে বেশিরভাগটাই ছিলেন রিসার্চ স্কলার বা গবেষক পড়ুয়া। এছাড়া খুবই জরুরি ভিত্তিতে ল্যাবের প্রয়োজন আছে এমন কিছু পড়ুয়াকে ফেরানো হয়। তবে তাঁদের জন্য আইআইটির তরফে কোনও মেসের ব্যবস্থা করা হয়নি। স্বল্প সংখ্যক পড়ুয়ারা নিজেদের মত করে প্রাইভেট মেসে নিজেদের খাবারের ব্যবস্থা করে নেন। কিন্তু এবার একলপ্তে এত পড়ুয়া ক্যাম্পাসে আসায় প্রতিটি হোস্টেলের মেস চালু করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আইআইটি খড়গপুর ক্যাম্পাসে বর্তমানে ২১টি হোস্টেল রয়েছে। এই হোস্টেল গুলিতেই পড়ুয়াদের বিভিন্ন ভাগে রাখার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। ২৬তারিখ থেকেই নিজ নিজ হোস্টেলের মেস থেকেই খাবার পাচ্ছেন পড়ুয়ারা।

আইআইটি খড়গপুর (IIT Kharagpur)কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, কঠোরভাবে কোভিড বিধি রক্ষা করা হচ্ছে এবং ভবিষ্যতেও হবে। পড়ুয়াদের আরটিপিসিআর নেগেটিভ রিপোর্টের পাশাপাশি করোনা ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ নেওয়ার নথি সঙ্গে নিয়েই ক্যাম্পাসে ঢোকার অনুমতি মিলছে। অভিভাবকরা কোনও ভাবেই হোস্টেলে ঢোকার অনুমতি পাচ্ছেননা। কিছু হোস্টেলে আগে থেকে থাকা পুরানো পড়ুয়ারাই নতুন পড়ুয়াদের লাগেজ নিয়ে যাওয়া থেকে প্রয়োজনীয় কাজে সাহায্য করছেন। পড়ুয়াদের হোস্টেলের বাইরে যাওয়ার ক্ষেত্রে চূড়ান্ত বিধিনিষেধ রয়েছে। নিরাপত্তাকর্মীদের বলা হয়েছে কড়া নজরদারি করতে। মাস্ক এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার ব্যাপারেও কর্তৃপক্ষ কোনভাবেই নমনীয়তা দেখাবেনা বলেও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে পড়ুয়াদের।

- Advertisement -
Latest news
Related news